সাভার প্রতিনিধি: আশুলিয়ায় কার্ভাড ভ্যানের ধাক্কায় মোটরসাইকেল আরোহী মো. ফরহাদ (২২) নামে এক আর্মড পুলিশ সদস্য নিহতের ঘটনায় ঘাতক কাভার্ড ভ্যান চালক সুজনকে আটক করেছে আশুলিয়া থানার চৌকস পুলিশ অফিসার এসআই এমদাদুল হক। এ সময় নবাব কার্গো লাইন নামের একটি কভার্ড ভ্যান (ঢাকা মেট্টো-ট ১৬-৪১৮১) আটক করা হয়।

মঙ্গলবার (১২ অক্টোবর) বিকেলে আশুলিয়ার গনকবাড়ী এলাকার ডিইপিজেডের সামনে থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

আটক সজুন (২৩) নোয়াখালী জেলার সেনবাগ থানার লেমুয়া গ্রামের আবুল কালামের ছেলে। সে ঢাকায় ভাড়া বাসায় থেকে কাভার্ডভ্যান চালাতো বলে জানা যায়।

এ ব্যাপারে আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) এমদাদুল হক জানান, কাভার্ড ভ্যান নিয়ে সে ইপিজেড এলাকায় অবস্থান করছে এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে ইপিজেড এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত যে, গত ২৯ সেপ্টেম্বর রাতে টঙ্গী-আশুলিয়া-ইপিজেড সড়ক দিয়ে আব্দুল্লাহপুর থেকে ইপিজেড পুলিশ ক্যাম্পে যাচ্ছিলেন ফরহাদ ও ইউসুফ। পথেমধ্যে জামগড়া এলাকায় পৌঁছালে একটি কাভার্ড ভ্যান তাদের মোটরসাইকেলে ধাক্কা দেয়। এতে পড়ে গিয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান ফরহাদ। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় ইউসুফকে উদ্ধার করে স্থানীয় একটি হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

নিহত ফরহাদ (কং-৭৫৪৭) দিনাজপুর জেলার নবাবগঞ্জ থানার নন্দনপুর গ্রামের মো. আবুল খায়েরের ছেলে। তিনি আশুলিয়ার ইপিজেড ৭ এপিবিএন ক্যাম্প এ কর্মরত ছিলেন। আহত ইউসুফ বগুড়া জেলার গাবতলী থানার হাট খোলাপাড়ার মো. মোখলেছের ছেলে।