ইমরান হোসেন, হাওলি প্রতিনিধিঃ রোববার থেকে সারা বাংলাদেশে উৎসবমুখর পরিবেশে যেখানে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার মধ্যে দিয়ে শিক্ষার্থীদের ফুল দিয়ে বরণ করা হয়। সেখানে একঝাক শিক্ষার্থী মেতে আছে অনলাইনে গেমস এর মধ্যে। সারা বাংলাদেশের সমস্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার পরেও অভিভাবকদের অসচেতনতায় শতকরা ৪০ শতাংশ শিক্ষার্থী বিদ্যালয়ে উপস্থিত হতে পারেনি। তাদেরকে দেখা গিয়েছে বিভিন্ন আড্ডার জায়গায় বসে অনলাইন গেমস এ মত্ত। বাংলাদেশে সব অনলাইন প্ল্যাটফর্ম থেকে পাবজি, ফ্রি-ফায়ারসহ ক্ষতিকর সব অনলাইন গেমস আগামী তিন মাস বন্ধ থাকার নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট।

তারপরও এসমস্ত শিক্ষার্থীরা, বাংলাদেশ সার্ভার ব্যতীত অন্য সমস্ত দেশের সার্ভার দিয়ে ভিপিএন এর মাধ্যমে অনলাইন গেমসে যোগদান করছে। ভিপিএন এর মাধ্যমে গেমসের সংযোগ বিচ্ছিন্ন ঘটানোর মধ্য দিয়ে সম্পূর্ণভাবে অনলাইন ভিত্তিক গেমসগুলো বন্ধ করা উচিত। যদি আমরা বন্ধ করতে না পারি, তাহলে আমাদের ছাত্র সমাজ ধ্বংসের লীলাভূমিতে পরিণত হবে।