রুহুল আমীন, আত্রাই (নওগাঁ) সংবাদদাতা : নওগাঁর আত্রাইয়ে শিশু কন্যাকে ধর্ষণের অভিযোগে থানায় মামলা দায়ের হয়েছে। মামলা দায়েরের পর থেকে ধর্ষক গা ঢাকা দিয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে গত ১৩ ফেব্রয়ারী উপজেলার লাকবাড়ি গ্রামে।

থানায় দায়েরকৃত মামলার এজাহার ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার শুকটিগাছা গ্রামের নূরম্নল ইসলামের সাথে গত ৮ বছর পূর্বে লাকবাড়ি গ্রামের আব্দুল শিকদারের কন্যা শিউলী বেগমের বিয়ে হয়। বিয়ের পর তাদের ঔরষে একটি কন্যা সন্তান জন্ম নেয়। সম্প্রতি তাদের বিয়ে বিচ্ছেদ হয়ে যায়। কন্যা সন্তান ছোট হওয়ায় মা শিউলী তাকে নিয়ে ২ বছর ধরে তার পিত্রালয় লাকবাড়ি গ্রামে অবস্থান করেন।

এদিকে গত ১৩ ফেব্রুয়ারী শিউলীর ভাতিজা শহিদুল ইসলামের ছেলে মোশারফ হোসেন (১৮) নূরুল ইসলামের ৫ বছর বয়সী শিশু কন্যাকে ঘরে নিয়ে জোর পূর্বক ধর্ষণ করে রক্তাক্ত করে। এ সময় ওই শিশু চিৎকার করতে থকলে তার মুখ গামছা দিয়ে চেপে ধরে। পরে তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে এলে তাকে নওগাঁ সদর হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়।

গ্রাম্য মাতবররা বিষয়টিকে ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করে। এদিকে ঘটনা জানতে পেরে মেয়ের বাবা বৃহস্পতিবার শিশু কন্যাকে সাথে নিয়ে এসে তিনি বাদি হয়ে আত্রাই থানায় মামলা দায়ের করেন।

আত্রাই থানার ওসি আবুল কালাম আজাদ বলেন, মামলা দায়েরের পর থেকে আসামী গা ঢাকা দিয়েছে। তাকে গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।