এন এইচ শাওন, আলমডাঙ্গা প্রতিনিধি: আলমডাঙ্গা উপজেলা ও পৌর আওয়ামীলীগের আয়োজনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৬ তম শাহাদত বার্ষিকীতে ১৫ই আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উদযাপন ও যথাযোগ্য মর্যাদায় পালনের লক্ষ্যে উপজেলা আওয়ামীলীগের দলীয় কার্যালয়ে রবিবার বেলা ১০টার দিকে এক প্রস্তুতিমুলক সভা অনুষ্ঠিত হয়।

১৫ই আগষ্ট নেমে আসে বাংলাদেশে শোকের ছায়া। ১৯৭৫ সালের সালের এ মাসেই বাঙালি জাতি হারিয়েছিলেন স্বাধীনতার মহান স্থাপিত হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে।আলমডাঙ্গা উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও পৌর মেয়র হাসান কাদির গনুর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চুয়াডাঙ্গা-১ আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা সোলায়মান হক ছেলুন।

প্রধান অতিথি’র বক্তব্যে এমপি সোলায়মান হক জোয়ার্দার ছেলুন বলেন- বাঙ্গালির মহান নেতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বেঁচে থাকলে আজ বাংলাদেশ আরো অনেক এগিয়ে যেতো। এরপরও তাঁর নির্মম হত্যাকাণ্ডগুলো মধ্য দিয়ে বাংলাদেশের অগ্রগতি থামানো যায়নি। আজ তাঁরই সুযোগ্য কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা দেশের অভূতপূর্ব উন্নয়নের মাধ্যমে আজ বাংলাদেশকে বিশ্বের দরবারে মর্যাদা লাভ করিয়েছেন।

এসময় বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামীলীগের সহসভাপতি এ্যাড. আব্দুর রশিদ, যুগ্ম সম্পাদক রিয়াজুল ইসলাম জোয়াদ্দার টোটন,
সাংগঠনিক সম্পাদক মুন্সী আলমগীর হান্নান, মাসুদুজ্জান লিটু বিশ্বাস, বন ও পরিবেশ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম খান। উপজেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ইয়াকুব আলী মাষ্টারের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সহসভাপতি মজিবর রহমান, শাহ আলম মন্টু, হামিদুল ইসলাম আজম, সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী খালেদুর রহমান অরুন পৌর আওয়ামীলীগেল সভাপতি দেলোয়ার হোসেন, সাধারণ সম্পাদক মতিয়ার রহমান ফারুক, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ও উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান এ্যাড. খন্দকার সালমুন আহমেদ ডন, কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি আশরাফুল হকসহ উপজেলা আওয়ামীলীগের ১৫টি ইউনিয়ন ও পৌর আওয়ামীলীগে ৯টি ওয়ার্ড কমিটির সভাপতি, সাধারণত সম্পাদক বৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।