বলিউড বাদশাহ হিসেবে শাহরুখ খানের পরিচিতি বিশ্বব্যাপী। ভারতের বাইরের অনেকেই শাহরুখের সূত্রেই বলিউডকে চিনে থাকেন। কিন্তু তিন দশকের দীর্ঘ ক্যারিয়ারে অজস্র সফলতা পেলেও আজ পর্যন্ত হলিউডে পা রাখেননি বলিউডের কিং খান।

ঐশ্বরিয়া রাই, প্রিয়াঙ্কা চোপড়া, দীপিকা পাড়ুকোন এমনকি হাল আমলের আলিয়া ভাটও হলিউডে কাজ করেছেন। কিন্তু নিজের আঙিনা ছাড়তে একেবারেই নারাজ শাহরুখ। কিন্তু কী কারণে হলিউডে কাজ করতে শাহরুখের এত অনীহা, তা নিয়ে অনেকের মনেই প্রশ্ন রয়েছে।

শাহরুখ খানকেও এ বিষয়ে একাধিকবার প্রশ্নের মুখোমুখি হতে হয়েছে। একবার এ প্রশ্নের জবাবে বলিউডের কিং খান বলেছিলেন, ইংরেজি ভাষায় নিজের দক্ষতার অভাবেই তিনি হলিউডে কাজ করতে আগ্রহী না। সেই সঙ্গে গায়ের রং, উচ্চতা এবং আলাদা কোনো বিশেষত্ব না থাকাকেও অনাগ্রহের কারণ হিসেবে উল্লেখ করেছেন শাহরুখ।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ২০০৮ সালের বার্লিন ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে এক গণমাধ্যমকর্মী শাহরুখের কাছে হলিউডের ছবিতে কাজ না করার কারণ জানতে চান। প্রত্যুত্তরে শাহরুখ বলেন, “আমি ইংরেজিতে অত দক্ষ না। আমাকে যদি এমন কোনো চরিত্র দেওয়া হয় যেখানে আমি বোকা এবং ভালো করে কথা বলতে পারি না, তাহলে একটা সম্ভাবনা আছে।”

এ অভিনেতা আরও বলেন, “আমি বিনয়ী হওয়ার চেষ্টা করছি না। আমার গায়ের রং কিছুটা বাদামি। অভিনেতা হিসেবে আমার মধ্যে বিশেষ কোনো দক্ষতা নেই। আমি কুংফু জানি না, সালসা নাচ নাচতে পারি না! তাছাড়া, আমি তেমন লম্বাও না। ইউরোপীয় সিনেমাগুলো দেখেই বলছি, সেখানে জায়গা করে নেওয়ার মতো মেধাবী নই আমি।”

ভারতীয় চলচ্চিত্র এবং বলিউড ইন্ডাস্ট্রির প্রতি ভালবাসা বর্ণনা করে শাহরুখ বলেন, “হলিউডের পরিবর্তে আমি বলিউডেই কাজ চালিয়ে যেতে আগ্রহী। বিশ্ববাসীর দরবারে আমি ভারতীয় চলচ্চিত্রকে পৌঁছে দিতে চাই।”

বড় পর্দায় শাহরুখ খানকে সর্বশেষ দেখা গিয়েছিল আনন্দ এল রাই পরিচালিত “জিরো” ছবিতে। আনুশকা শর্মা ও ক্যাটরিনা কাইফের বিপরীতে অভিনীত কিং খানের এ সিনেমাটি অবশ্য বক্স অফিসে মুখ থুবড়ে পড়েছিল। তবে আগামী বছর বড়সড়ভাবেই রূপালি পর্দায় ফিরতে যাচ্ছেন শাহরুখ।

ভারতের প্রজাতন্ত্র দিবস উপলক্ষে ২০২৩ সালের ২৫ জানুয়ারি প্রেক্ষাগৃহে আসবে শাহরুখ খানের পরবর্তী চলচ্চিত্র “পাঠান”। ভারতের অন্যতম শীর্ষস্থানীয় প্রয়োজন সংস্থা যশরাজ ফিল্মসের ৫০ বছর পূর্তি উদযাপনের অংশ হিসেবে মুক্তি পেতে যাচ্ছে পাঠান। ছবিটি হিন্দির পাশাপাশি তামিল ও তেলেগু ভাষায়ও ছবিটি মুক্তি পাবে। সিদ্ধার্থ আনন্দ পরিচালিত ও আদিত্য চোপড়া প্রযোজিত “পাঠান” চলচ্চিত্রে শাহরুখের সঙ্গে দেখা যাবে জন আব্রাহাম ও দীপিকা পাড়ুকোনকেও।

আগামী বছরের ২ জুন মুক্তি পাবে শাহরুখ খানের ক্যারিয়ারের সর্বপ্রথম প্যান ইন্ডিয়ান সিনেমা “জাওয়ান”। পরিচালনা করবেন ভারতীয় দক্ষিণি ছবির খ্যাতনামা নির্মাতা অ্যাটলি কুমার। এতে শাহরুখের বিপরীতে থাকবেন ভারতীয় দক্ষিণি ছবির জনপ্রিয় অভিনেত্রী নয়নতারা। প্যান ইন্ডিয়ান বলে স্বভাবতই একাধিক ভাষায় মুক্তি পাবে সিনেমাটি।

আগামী বছরটি যেমন শাহরুখের হাত ধরে শুরু হতে যাচ্ছে, তেমনি বিদায়ও নেবে তার মাধ্যমে। ২০২৩ সালের শেষদিকে মুক্তি পাবে শাহরুখ খান অভিনীত আরেক চলচ্চিত্র “ডাংকি। ছবিটি নির্মাণ করবেন বলিউডের অন্যতম সফল পরিচালক রাজকুমার হিরানী। ড্রামা ঘরানার এ চলচ্চিত্রটি মুক্তি পাবে ২০২৩ সালের ২৩ ডিসেম্বর।