খোরশেদ  আলম, সাভার প্রতিনিধিঃ ঢাকার আদৃরে শিল্পাঞ্চল সাভারের আশুলিয়া থানা ধীন শিমুলিয়া ইউনিয়ন একটি গুরুত্বপূর্ণ ইউনিয়ন হিসেবে পরিচিত। কিন্তু
করোনা মহামারীর ধাক্কায় বন্ধ হয়ে যাওয়া ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনের তফসিল। 

তবে বসে নেই প্রার্থীরা তফসিল ঘোষণার আগেই ইতোমধ্যে মাঠে ময়দানে প্রার্থীদের দৌড় ঝাপ শুরু হয়েছে এবং চেষ্টা চালাচ্ছে সকল প্রার্থীরা। 

 কোন দিক দিয়ে ব্যতিক্রম নয় আশুলিয়ার শিমুলিয়া ইউনিয়নও, তাই আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে  চেয়ারম্যান পদে সবচেয়ে বেশি আলোচনায় আছে জনপ্রিয় মানবিক শিমুলিয়া ইউনিয়ন যুবলীগের বর্তমান সাধারণ সম্পাদক জনাব মোঃ হারুন প্রামানিক।

ইতিমধ্যেই হারুন প্রামানিক এলাকার গরিব দুঃখী ও অসহায় সাধারণ মানুষের কাছে তিনি অত্যন্ত আস্থাভাজন ব্যক্তি হিসেবে সু-পরিচিতি লাভ করেছেন। 
 তিনি দীর্ঘদিন ধরে নিজেকে ব্যস্ত রেখেছেন সাধারণ মানুষের সেবায়। তিনি সাধারণ মানুষের স্বার্থে উন্নয়ন মূলক কাজের সাথে জড়িত রয়েছেন। সব সময় নিজের সামর্থ্যনুযায়ী গরীব দুঃখী মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন। মহামারী করোনা কালে সাধারণ মানুষের সাথে থেকে তার সাধ্য অনুযায়ী বিভিন্ন সংগঠনের মাধ্যমে অনুদান দিয়েছেন এবং তিনি নিজেকে মানুষের সেবায় উৎসর্গ করে দিতে চান। আসন্ন ইউপি নির্বাচনে আশুলিয়া থানা শিমুলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের  নির্বাচনে।  আরো বেশ কয়েকজন প্রার্থীর নাম শোনা যাচ্ছে এদের মধ্যে অন্যতম একজন  হারুন  প্রামানিক। যদি চেয়ারম্যান নির্বাচিত হতে পারি এই শিমুলিয়া ইউনিয়নকে   একটি মডেল ইউনিয়ন হিসেবে উপহার দিবো ইনশাল্লাহ।
তিনি আরো বলেন আমার বাবাকে  দেখছি সারা জীবন  মানুষের পাশে সুখে  দুঃখে ছিল। আমি জখন ছোট ছিলাম আমাদের এলাকায়  ভালো একটি মসজিদ ছিল না, তখন এলাকা বাসীরে নিয়া নামা পাড়া এলাকায় বাবার নিজের নামে থাকা ১৩ শতাংশ জমি দিয়া কলতা সুতি কেন্দ্রীয়  জামে মসজিদ তৈরি করেন। এখন ঐ মসজিদ  আমাদের এলাকার বড় মসজিদ হিসেবে পরিচিত।

কলতা সুতি কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে মুসল্লী বেশি হয় জায়গা হয় না তাই আমি বাবার কথা স্মরণ করে আমাদের মহল্লায় আরেকটি মসজিদ নির্মাণ করি। বায়তুন নূর জামে মসজিদের  ১০ শতাংশ জায়গার আমার নিজের জায়গা মসজিদের নামে দিয়েছি।  শুধু  তাই না মসজিদের জত খরচ ইমাম মুয়াজ্জিনের বেতনও আমি নিজে বহন করি।

তিনি আরও বলেন, এই ইউনিয়ন সকল গরীব দুঃখী ও অসহায় মানুষের পাশে ছিলাম আছি আর ভবিষ্যতে থাকব এবং এলাকার উন্নয়নে সাধারণ মানুষের স্বার্থে যেন কাজ করতে পারি। তাই সকলে আমার জন্য দোয়া করবেন। মহান আল্লাহ তায়ালা যেন আমাকে শিমুলিয়া ইউনিয়নের সকল মানুষের সেবা করার সুযোগ দেয় ।