নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স বলেছেন, সরকার বিএনপির জনপ্রিয়তাকে ভয় পায় বলেই মিথ্যাচার করে জনগণকে বিভ্রান্ত করতে চায়। ১২ বছর নির্যাতন, নিপীড়নের স্টিম রোলার চালিয়ে বিএনপিকে নেতৃত্ব শূন্য করতে মিথ্যা মামলা, ফরমায়েশি রায়, আইনি ও রাজনৈতিক অধিকার কেড়ে নিয়ে এখন বলা হচ্ছে বিএনপি ক্ষমতায় গেলে প্রধানমন্ত্রী হবার কেউ নাই।

তিনি আরও বলেন, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ছাড়াও যোগ্য নেতৃত্ব বিএনপির রয়েছে, তাই এসব নিয়ে উদ্দেশ্যমূলক বক্তব্য দিয়ে নিজেদের ব্যর্থতা আড়াল করা যাবে না।

শনিবার দুপুরে মুক্তাগাছা পৌর বিএনপির দ্বি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

পৌর বিএনপির আহ্বায়ক সুলতান আহমেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে আরও বক্তব্য রাখেন বিএনপির অংঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

সম্মেলনে প্রিন্স আরও বলেন, বিএনপি জনগণের দল। জনগণের সাথে সম্পৃক্ত থেকে জনপ্রত্যাশা অনুযায়ী কাজ করতে হবে। নেতাকর্মীদের যেকোনো মূল্যে ঐক্যবদ্ধ থেকে আন্দোলনের সর্বাত্মক প্রস্তুতি নেয়ার আহ্বান জানান তিনি।

সম্মেলনের কাউন্সিল অধিবেশনে সভাপতি পদে সহিদুল ইসলাম এবং সাংগঠনিক সম্পাদক পদে হাবিবুর রহমান হবি, আরিফ রাব্বানী টুটুল বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় এবং সাধারণ সম্পাদক পদে মুর্শিদুজ্জামান সাইফুল কাউন্সিলরদের গোপন ভোটে নির্বাচনের মাধ্যমে নির্বাচিত হয়েছেন।