ওয়েব ফিল্ম ও চলচ্চিত্র দিয়ে পরীমণির হাতে থাকা সিনেমার সংখ্যা দশের অধিক। এর মধ্যে প্রীতিলতা চলচ্চিত্রের শুটিং শুরু হয়েছিল। জামিনে মুক্ত হওয়ায় চলচ্চিত্রপ্রেমীদের মনে প্রশ্ন, পরীমণি শুটিংয়ে ফিরবেন কবে?

বুধবার দুপুরে কাশিমপুর কারাগার থেকে তার বনানীর বাসায় আসেন। এ সময় পরীমণির সঙ্গে ছিলেন তার আইনজীবী নীলাঞ্জনা রিফাত সুরভী। প্রীতিলতা সিনেমার পরিচালক রাশিদ পলাশ বলেন, ‘আমি ঢাকার বাইরে ছিলাম। এখন ঢাকা ফিরছি। ফলে পরীর সঙ্গে আমার দেখা হয়নি। তবে কথা হয়েছে। পরিস্থিতি বিবেচনায় খুব বেশি কথা বলা হয়নি। পরীর শারীরিক ও মানসিক অবস্থা ভালো না। কয়েক দিন রেস্ট নিতে হবে। শারীরিক ও মানসিক অবস্থা স্বাভাবিক হলে এ নিয়ে আলোচনা করা হবে।’

তিনি আরো বলেন, ‘আমাদের সব ধরনের প্রস্তুতি নেয়া আছে। আমরা তো শুটিংয়ের জন্য রেডিই ছিলাম। এখনো আছি। সেপ্টেম্বর প্রীতিলতার আত্মাহুতির মাস। পরীমণি চাইলে আমরা শুটিং শুরু করতে প্রস্তুত। তবে অবশ্যই তা পরীমণির মানসিক ও শারীরিক অবস্থার ওপর নির্ভর করবে।’ গ্রেফতারের পর থেকেই পরীমণির মুক্তির দাবি জানিয়ে আসছিলেন রাশিদ পলাশ। তিনি বলেন, ‘২৬ দিন পরীমণি একটা অন্য রকম পরিস্থিতিতে ছিলেন। তাকে আবার আগের পরিস্থিতির মতো করে তুলতে আমরা প্রীতিলতার দ্বিতীয় লুক তৈরি করেছি। সিনেমার গান রেডি হয়েছে। এগুলো দেখিয়ে-শুনিয়ে আমরা তার মানসিক অবস্থার উন্নতি করতে চাই।’

পরীমণির আইনজীবী নীলাঞ্জনা রিফাত সুরভী সাংবাদিকদের বলেন, ‘পরীমণির জামিন চার্জশিট দেয়া পর্যন্ত। চার্জশিট জমা দেয়া হলে তাকে আবার জামিন নিতে হবে।’ এ সময় তিনি পরীমণির শুটিংয়ে যেতে কোনো বাধা নেই জানিয়ে বলেন, ‘পরীমণি চাইলেই শুটিং করতে পারবেন। তার শুটিংয়ে যাওয়া নিয়ে আইনি কোনো বাধা নেই।’