নিজস্ব প্রতিবেদকঃ ২০২০ সালের মার্চ মাস থেকে ডিসেম্বর মাসের মধ্যকার সময়ে করোনার কারণে ২০ শতাংশ প্রবাসী কাজ হারিয়েছেন বলে জানা গেছে। যাদের মধ্যে বেশিরভাগ ছিলেন মালয়েশিয়া এবং মধ্যেপ্রাচ্যে। এদের মধ্যে দেশে ফিরে এসেছেন শতকরা ৫ ভাগ। ২৭৩ জন প্রবাসীর ওপর বেসরকারি গবেষণা প্রতিষ্ঠান সাউথ এশিয়ান নেটওয়ার্ক অন ইকোনমিক মডেলিং-সানেমের জরিপে উঠে এসেছে এসব তথ্য। এ অবস্থায় প্রবাসীদের জন্য দীর্ঘমেয়াদে পরিকল্পনার পাশাপাশি বেগহীন অভিবাসন প্রক্রিয়ার তাগিদও দিচ্ছেন বিশ্লেষকরা।

বিশ্বব্যাপী করোনা মহামারীর মধ্যেও দেশের বাইরে থাকা বাংলাদেশিরা টাকা পাঠিয়েছেন। যার কারণে রেমিট্যান্স এবং বৈদেশিক মুদ্রার রির্জাভে রেকর্ডও গড়েছেন। কিন্তু প্রবাসীরাও ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন করোনার প্রভাবে। যার পরিসংখ্যান উঠে এসেছে গবেষণা সংস্থা-সানেমের জরিপে।

২৭৩ জন প্রবাসীর ওপর জরিপ করে সানেম বলছে, করোনার কারণে ২০ ভাগই তাদের কাজ হারিয়েছেন। এদের মধ্যে ৩৪ ভাগের বেশি মালয়েশিয়াতে কর্মরত ছিলেন। সৌদিআরব, ওমান, কুয়েতসহ মধ্যেপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশের প্রবাসীরাও ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন।

প্রবাসী আয়ে প্রবৃদ্ধি ধরে রাখার জন্য এখনই অভিবাসন নীতি নিয়ে কাজ করার তাগিদ দিচ্ছেন বিশ্লেষকরা। পাশাপাশি বৈধপথে আসা প্রবাসী আয়ের সুফল পেতে, সুনিদিষ্ট বিনিয়োগের মাধ্যম তৈরি করার পরামর্শ তাদের।

উল্লেখ্য যে, করোনায় ৬১ ভাগের বেশি কর্মীর বেতন কমেছে। এছাড়া এসময় কর্মসংস্থান হারিয়েছেন প্রায় ৮ ভাগ মানুষ বলে জানিয়েছেন এই জরিপের কর্মকর্তারা।