খান নাজমুল হুসাইন, সাতক্ষীরা প্রতিনিধিঃ কলারোয়ায় চেয়ারম্যান পদে ১৩, ও সাধারণ সদস্য পদে-১৯ জন প্রার্থীর মনোনয়ন প্রত্যাহার করা হয়েছে। বুধবার ২৪ মার্চ ছিল মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিন। এর আগে গত ২০ মার্চ থেকেও এই প্রত্যাহার শুরু হয়েছিল। শেষ দিনে চেয়ারম্যান ও সাধারণ সদস্য পদে মোট ৩২ জন সদস্য তাদের মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহার করে নিয়েছেন। উপজেলার ১০ টি ইউনিয়নের বিপরীতে চেয়ারম্যান পদে ৫১ জন, সংরক্ষিত মহিলা আসনে ১২৩ জন ও সাধারণ সদস্য পদে -৪০৬ জন সহ মোট ৫৮০ জন প্রার্থী তাদের মনোনয়ন পত্র দাখিল করেছিলেন। এখন সেই সংখ্যা দাঁড়ালো – ৫৪৮ জনে। সংরক্ষিত মহিলা আসনের ১২৩ জনের মধ্যে কেহ প্রার্থীতা প্রত্যাহার করেনি শেষ দিন পর্যন্ত। গত ২০ মার্চে প্রার্থী যাচাই-বাছাইয়ের দিনে বাংলাদেশ ব্যাংকের ঋণ খেলাপীর দায়ে ২ জন চেয়ারম্যান প্রার্থীর মনোনয়ন সাময়িক স্থগিত করা হলেও আবার তা বৈধ ঘোষনা করেন কলারোয়া উপজেলা নির্বাচন অফিস। চেয়ারম্যান পদে প্রত্যাহার করে নিলেন যারা

১২ নং যুগীখালী ইউনিয়নের মনিরুজ্জামান। ২ নং জালালাদ ইউনিয়নের শওকত আলী, শরিফুর রহমান। ৩নং কয়লা ইউনিয়নের শেখ ইমরান হোসেন, জি এম জাহাঙ্গীর হোসেন, ও বাবু আহম্মেদ। ৫নং কেড়াগাছি ইউনিয়নের মফিজুল ইসলাম, ৬ নং সোনাবাড়িয়া ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান মনিরুল ইসলাম, আব্দুর রহিম। ৭ নং চন্দনপুর ইউনিয়নের রমজান আলি, নুরুল ইসলাম। ৯নং হেলাতলা ইউনিয়নের মুনসুর আলী, আবু জাফর। ১নং জয়নগর, ৪ নং লাঙ্গলঝাড়া ও, ১১ নং দেয়াড়া ইউনিয়নের কোন প্রার্থী তাদের মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহার করেনি। কলারোয়ায় আগামী ১১ এপ্রিল ইউপি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে । উপজেলার ১২ টি ইউনিয়নের মধ্যে কেরালকাতা ও কুশোডাঙ্গা ইউনিয়ন বাদে ১০ টি ইউপিতে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

এদের মধ্যে উপজেলা আওয়ামীলীগ মনোনীত ১০ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দেন তারা হলেন, ১নং ইউনিয়নের শামছুউদ্দীন আল মাসুদ বাবু, ২নং ইউনিয়নের প্রভাষক আমজাদ হোসেন, ৩নং কয়লা ইউনিয়নে আসাদুল ইসলাম, ৪নং লাঙ্গলঝাড়া ই্উনিয়নে প্রভাষক এম এ কালাম, ৫নং কেড়াগাছি ইউনিয়নে ভুট্টলাল গাইন ৬নং সোনাবাড়ী ইউনিয়নে বেনজির হেলাল,৭নং চন্দনপুর ইউনিয়নে মনিরুল ইসলাম মনি ও ৯ নং হেলাতলা ইউনিয়নে সরদার আনছার আলী। নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগের নেতা কর্মী ছাড়া ও জামাত বিএনপি ঘরোনার চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন । এই হিসাবে ১০ জন আওয়ামীলীগ প্রার্থীর বিপরীতে ২৮ জন স্বতন্ত্র ও বিদ্রোহী প্রার্থী চুড়ান্ত ।

এবং সংরক্ষিত মহিলা আসনে ১২৩ জন ও সাধারন সদস্য পদে ৩৮৭ জন প্রার্থী আগামী কাল ২৫ মার্চ প্রতীক বরাদ্দ পাওয়ার অপেক্ষায় রয়েছে। এদিকে মনোনয়ন জামাদানের পর হতে সাধারণ ভোটার নেতাকর্মী ও সমর্থকদের সরব উপস্থিতিতে নির্বাচনকে ঘিরে উপজেলা জুড়ে চলছে উৎসবের আমেজ।
কলারোয়া উপজেলা নির্বাচন অফিসার মনোরঞ্জন বিশ্বাস বলেন, আজ প্রার্থীতার প্রত্যাহারের সর্বশেষ সময় ছিল বিকাল ৫ টা পর্যন্ত। আগামীকাল আমরা প্রার্থীদের মঝে প্রতীক প্রদান করবো।