কালীগঞ্জ (গাজীপুর) প্রতিনিধি: কালীগঞ্জে নৌকা চড়ে নাতিনকে সঙ্গে নিয়ে বাড়ির পাশে বিলে মাছ শিকারে যায় দাদা সুবল বেঞ্জামিন ক্রুশ(৭০)। এক পর্যায়ে বিলের মাঝে নৌকা ডুবে যায়। সে সময় নাতিনকে বাঁচাতে প্রাণপণ চেষ্টা করে নিজেই মৃত্যুর কোলে ঢলে পরেন দাদা।

বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) দুপুরে ১২টার দিকে নাগরী ইউনিয়নের করান এলাকায় মর্মান্তিক এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত সুবল বেঞ্জামিন ক্রুশ করান এলাকার মৃত মংলা আন্তনি ক্রুশের ছেলে। আর বেঁচে যাওয়া নাতিন তাঁর ছেলে উজ্জ্বল ক্রুশের ছেলে প্রিপেলে ক্রুশ (১০)।

নিহতের মেয়ে কল্পনা রোজারিও বলেন, বাবা প্রিপেলেকে সঙ্গে নিয়ে সকাল সাড়ে ছয়টার দিকে মাছ ধরতে নৌকায় চড়ে আমাদের বাড়ির পাশের বিলে যায়। দুপুর বারোটার দিকে হঠাৎ করে নৌকা পানিতে ডুবে যায়। সে সময় বাবা প্রিপেলেকে বাঁচানোর চেষ্টা করে নিজেই পানিতে ডুবে যায়। পরে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক বাবাকে মৃত ঘোষণা করেন। প্রিপেলেকে সুস্থ আছে।

কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক মানষী চন্দ্র বলেন, সুবল বেঞ্জামিন ক্রুশকে মৃত অবস্থা বিকেল পৌণে চারটার দিকে হাসপাতালে আনা হয়েছিল।