ওমর আলী মোল্যা, কালীগঞ্জ (গাজীপুর) প্রতিনিধিঃ কালীগঞ্জ পৌর এলাকার ভাদার্ত্তী গ্রামের ত্রিশোর্ধ বেকার যুবক মোহাম্মদ আলামিন। তার পরিচিত এক লোকের মাধ্যমে তিনি জানতে পারেন উপজেলা যুব উন্নয়ন অফিসে মৎস্য প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। তিনি যোগাযোগ করেন উপজেলা যুব উন্নয়ন অফিসে। পরে শুরু করেন গাজীপুর জেলা যুব অধিদপ্তরের অধীনে এক মাসের মৎস্য প্রশিক্ষণ। শুধু আলামিনই না তার মতো একই বিষয়ে প্রশিক্ষণ নেন ত্রিশোর্ধ রিয়াদ হোসেন, খাইরুল ইসলাম, লাকি, খুশি, রেহানা, রোজিনা, সিরাজুম মনির, মাহফুজুর রহমান, মাহমুদুল হাসান, রাকিবুল হাসান, নাইমুল ইসলাম নান্নুসহ উপজেলার ৩০ জন বেকার যুবক যুবতি।

মঙ্গলবার (২৩ মার্চ) দুপুরে মাসব্যাপী মৎস্য চাষের উপর প্রশিড়্গণ শেষে প্রশিক্ষণপাপ্ত ওই ৩০ জন বেকার যুবক-যুবতিকে সনদ পত্র বিতরণ করা হয়।

সনদপত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে অতিথিদের পক্ষ থেকে করা ‘কি করবে তারা এই প্রশিক্ষণ সনদ নিয়ে?’ বেকার জীবনের অবসান ঘটিয়ে নিজেদের আত্ননির্ভর করতে চান তারা। প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত বেকার যুবক-যুবতিদের এমন প্রত্যাশার কথায় খুশি অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শিবলী সাদিক, বিশেষ অতিথি গাজীপুর জেলা যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক হারুন অর রশীদ খান।

পরে অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি এবং বিশেষ অতিথি তাদের বক্তব্যে বেকার যুবক-যুবতিদের মৎস্য চাষে সহজ সুদে যুব ঋণ ও খাস পুকুর লিজের আশ্বাস দেন।

অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন কালীগঞ্জ উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা জহির উদ্দিন। সনদপত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে গাজীপুর জেলা মৎস্য প্রশিক্ষক শর্মিলী আহমেদ, সহকারী উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা শফি, জাহিদুল হক, বলরাম বণিক প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।