এস কে রাজুু- কিশোরগন্জ প্রতিনিধিঃ কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়ায় মাত্র দুই হাজার ৮শ’ টাকা এবং এক হাজার ৮শ’ টাকা মূল্যের একটি মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নিতে মো. সুমন মিয়া নামে এক যুবককে হত্যার দায়ে তার বন্ধু মো. রাজীব ওরফে বুলবুল (২৮) কে মৃত্যুদণ্ড এবং ২০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড দিয়েছেন আদালত। মঙ্গলবার (২৬ নভেম্বর) সকালে কিশোরগঞ্জের অতিরিক্ত দায়রা জজ তৃতীয় আদালতের বিচারক প্রদীপ কুমার রায় জনাকীর্ণ আদালতে এই রায় প্রদান করেন।

রায় ঘোষণার সময় বন্ধুহন্তারক মো. রাজীব ওরফে বুলবুল আদালতে উপস্থিত ছিল। মৃত্যুদণ্ডে দণ্ডিত মো. রাজীব ওরফে বুলবুল পাকুন্দিয়া উপজেলার জাঙ্গালিয়া ইউনিয়নের চরটেকী কোনাপাড়া গ্রামের সোহরাব উদ্দিনের ছেলে। অন্যদিকে নিহত মো. সুমন মিয়া একই এলাকার মাহতাব উদ্দিনের ছেলে। সে রাজমিস্ত্রীর কাজ করতো।

মামলার বিবরণে জানা যায়, নিহত সুমন ও মো. রাজীব ওরফে বুলবুল ঘনিষ্ঠ বন্ধু ছিল। এই সুবাদে ২০১৫ সালের ৬ জুলাই রাত ১০টার দিকে রাজীব ওরফের বুলবুল কাজ আছে বলে মোবাইল ফোনে সুমনকে চরটেকী নামাপাড়া এলাকার পতিত জমিতে ডেকে নিয়ে যায়। জমিতে মো. রাজীব ওরফে বুলবুল তার গামছা বিছিয়ে বেশ কিছুক্ষণ দু’জনে কথাবার্তা বলে।

এক পর্যায়ে রাত ১১টার দিকে মো. রাজীব ওরফে বুলবুল তার বন্ধু সুমনের সঙ্গে থাকা দুই হাজার ৮শ’ টাকা এবং এক হাজার ৮শ’ টাকা মূল্যের নকিয়া ব্র্যান্ডের একটি মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেয়ার জন্য সুমনের গলায় গামছা প্যাঁচিয়ে মাটিতে শুইয়ে ফেলে। পিঠের উপর চড়ে বসে সজোরে গলায় গামছা দিয়ে চেপে ধরে শ্বাসরুদ্ধ করে হত্যা করে।

পরে সুমনের নিথর দেহ রাজীব ওরফে বুলবুল কাঁধে করে নিয়ে বাড়ি সংলগ্ন চাচা আমির উদ্দিনের পুকুরপাড়ে নিয়ে যায়। সেখানে সুমনের নিথর দেহে উপর্যুপরি ছুরিকাঘাত করে লাশ চাচা আমির উদ্দিনের বাথরুমের ট্যাংকির মধ্যে ফেলে রেখে টাকা ও মোবাইল নিয়ে পালিয়ে যায় রাজীব ওরফে বুলবুল।

ঘটনার একদিন পর ৮ জুলাই দুপুরে জনতার সহায়তায় পুলিশ রাজীব ওরফে বুলবুলকে আটক করলে সে ঘটনার বিশদ বিবরণ দেয় এবং তার দেয়া স্বীকারোক্তি অনুযায়ী বাথরুমের ট্যাংকির মধ্য থেকে সুমনের লাশ উদ্ধার করে।

এ ঘটনায় ওইদিনই নিহত সুমন মিয়ার মা মোছা. শিউলী আক্তার বাদী হয়ে পাকুন্দিয়া থানায় মামলা দায়ের করেন। এছাড়া আসামি রাজীব ওরফে বুলবুল আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করে।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই মো. শাহাব উদ্দিন ওই বছরেরই ১৫ ডিসেম্বর রাজীব ওরফে বুলবুলকে একমাত্র আসামি করে আদালতে চার্জশীট দাখিল করেন। সাক্ষ্য-জেরা শেষে মঙ্গলবার (২৬ নভেম্বর) চাঞ্চল্যকর এই মামলার রায় ঘোষণা করা হয়।