জসিম উদ্দিন, খানসামা (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ পশ্চিমা লঘুচাপ ও একদিনের টানা বৃষ্টির সাথে বাতাসের কারণে দিনাজপুরের খানসামা উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের অনেক কৃষকের আমন ধান মাটিতে মিশে গেছে। এতে দিশেহারা হয়ে পড়েছেন তারা।

রবিবার সকাল হতে বিরামহীনভাবে বৃষ্টি ও হাল্কা বাতাস হওয়ায় ধান গাছ মাটির সাথে মিশে যায়। চলতি মৌসুমে আবহাওয়া অনুকুলে থাকায় এই উপজেলার কৃষকরা প্রায় উৎসব মুখর পরিবেশে রোপা আমনের চাষ করেছিলো।
ছিলো বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা। কৃষকরাও বুকে বেঁধেছিলো রঙ্গীন স্বপ্ন। আর ১৫/২০ দিন পরে যে ধান কৃষকের গোলায় উঠত কিন্তু হঠাৎ এই বৃষ্টিতে কৃষকের বুক ভরা স্বপ্ন এক নিমেশেই ভঙ্গ হয়ে গেছে। এখন শুধুই রয়েছে হতাশা। ধানের এই অবস্থায় হতাশ হয়ে পড়েছে কৃষক পরিবার গুলি।

সরেজমিনে উপজেলার বিভিন্ন মাঠ ঘুরে দেখা গেছে, বৃষ্টিতে কাঁচা ও আধাপাকা ধান মাটিতে শুয়ে আছে কিছু কিছু জমিতে জমে আছে বৃষ্টির পানি। এসময় স্থানীয় কৃষকরা বলেন,‘দু মুঠো ভাত খাওয়া আশায় এনজিও থেকে ঋণ নিয়ে রোপা আমনের চাষ করেছিলাম। এবার ধানের ফলন ও ভালো হয়েছিলো। ভেবেছিলাম এবারের ধান বিক্রয় করে লাভবান হবো; কিন্তু শেষ মূহুর্তে এসে সব শেষ হয়ে গেলো।’

রবিউল ইসলাম নামের এক কৃষক বলেন,‘ তিনি দুই বিঘা জমিতে রোপা ধানের চাষ করেছিলেন। সব ধানে এখন শিষ এসেছে। আর ১৫-২০ দিন পরে তার ধান ঘরে উঠতো কিন্তু হঠাৎ এই বৃষ্টিতে তার ১ বিঘা জমির ধান মাটিতে পড়ে গেছে। এখন তো সব ধানেই চিটা হয়ে যাবে।
এ ছাড়াও উপজেলার অনেকেই জানান, এভাবে বাতাস ও বৃষ্টিপাত হলে আসন্ন আমন মৌসুমে খানসামা উপজেলার কৃষকদের মারাত্মক ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।