আব্দুল আলীম প্রামানিক, গঙ্গাচড়া (রংপুর) প্রতিনিধিঃ রংপুরের গঙ্গাচড়ায় বৈদ্যুতিক লাইন সংস্কার করার সময় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে ২৫ বছরের এক শ্রমিকের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। মৃত শ্রমিক তফিজুল ইসলাম (বাহাদুর) উপজেলার মর্নেয়া ইউনিয়নের চৌদ্দ এলাকার মজিবর রহমানের পুত্র। ঘটনাটি সোমবার সকাল ১০টার সময় উপজেলার কোলকোন্দ ইউনিয়নের মরিয়ম ছিল্লানির মাজার এলাকায় ঘটে। ঘটনাস্থল অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এ-সার্কেল) আবু তৈয়ব আরিফ হোসন, রংপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ এর সভাপতিসহ উদ্ধর্তন কর্তৃপক্ষ।

এলাকাবাসী জানায়, কোলকোন্দ ইউনিয়নের ক্লিনিকপাড়া হতে গঙ্গাচড়া সদর পর্যন্ত দেড় মাস ধরে বৈদ্যুতিক পুরাতন খুঁটি ও তার পরিবর্তনের কাজ করে আসছে বগুড়ার নাহার কন্সট্রাকশন নামক ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান। এরই ধারাবাহিকতায় গতকাল সকালে লাইনের কাজ করার জন‍্য বাহাদুর পিলারে উঠলে অসাবধানতাবশত বৈদ্যুতিক তারে হাত পড়লে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে সেখানেই তার মৃত্যু হয়ে খুঁটিতে ঝুলে থাকে। সংবাদ পেয়ে থানা পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস এর লোকজন ঘটনাস্থল থেকে বাহাদুরের লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।

বাহাদুরের সাথে কাজ করা শ্রমিক মিজানুর রহমান জানান, আমরা ১৫ জনের একটি দল প্রায় দেড় মাস ধরে খুঁটি ও তার লাগানোর কাজ করে আসছি। উপরের কাজ শেষ হওয়ায় অফিস থেকে লাইন শাটডাউন দিয়ে কাজ করার অনুমতি না থাকায় আমরা লাইন চালু অবস্থায় শুধুমাত্র ব‍্যারেল ফেলে কাজ করছি। সে জানায় অসাবধানতাবশত নিউটল মনে করে ফেজ এ হাত পড়লে এ দুর্ঘটনাটি ঘটে।

তবে গঙ্গাচড়া পল্লী বিদ্যুতের এ জি এম প্রমোদ কুমার জানান, মিজানুরের অভিযোগ সত্যি নয়। আমরা অফিস থেকে লাইন শাটডাউন দেয়া যাবেনা কখনই বলিনি। সম্পূর্ণ অসাবধানতায় এ দুর্ঘটনাটি ঘটেছে বলে তিনি জানান।

গঙ্গাচড়া মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ সুশান্ত কুমার সরকার জানান ঘটনাটি মর্মান্তিক। ইউডি মামলা দায়ের করে লাশ ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে।