আবুল কালাম আজাদ, গাংনী (মেহেরপুর) প্রতিনিধি : মেহেরপুরের গাংনীতে গুড়ি গুড়ি বৃষ্টি হয়েছে। ইটভাটার জন্য বহনকৃত মাটি রাস্তায় পড়ে জন দূর্ভােগ চরমে পৌঁছেছে।

জানা যায়,গাংনী উপজেলার বিভিন্ন এলাকার ইটভাটার জন্য ফসলি জমির মাটি কেটে রাস্তা দিয়ে প্রতিনিয়ত নেয়া হচ্ছে ইটভাটায়। মাটি বহনকারি গাড়ি থেকে মাটি পড়ে রাস্তার বেহাল দশা হয়ে পড়ছে। ফলে বিশেষ করে উপজেলার মেহেরপুর-কুষ্টিয়া সড়ক,গাঁড়াডােব-আমঝুপি সড়ক,গাংনী-ধানখােলা সড়ক,গাংনী-হাড়িয়াদহ সড়ক,পশ্চিম মালসাদহ-হিজলবাড়ীয়া সড়ক,বাঁশবাড়িয়া-চিৎলা সড়ক,গাঁড়াডােব পােড়াপাড়া-জুগিন্দা সড়ক,চিৎলা-জুগিন্দা সড়ক,বামন্দী-রামনগর সড়ক,গাংনী-কাথুলী সড়ক,আকবপুর-মহাম্মদপুর সড়কসহ প্রতিটি সড়কে মাটি পড়ে দূর অবস্থার সৃষ্টি হচ্ছে।  সড়কে পড়ে থাকা মাটি শুকিয়ে ধুলােয় পরিণত হচ্ছে। ওই সব সড়ক দিয়ে যানবাহন চলাচলের সময় ধুলাে উড়ে যেনাে দিনের বেলাও অন্ধকার আকার ধারণ করছে।

এদিকে বুধবার সন্ধ্যা রাতে আকাশ থেকে গুড়ি-গুড়ি বৃষ্টি হয়। বৃষ্টির পানি আর সড়কে পড়ে থাকা মাটি মিশে একাকার হয়ে পড়ে। দূর্ঘটনায় পড়ে একাধিক মানুষ। বুধবার সন্ধ্যায় বৃষ্টির পানি ও মাটি মিশে সড়ক পিচ্ছিল হওয়ার কারণে  মেহেরপুর-কুষ্টিয়া সড়কের গাংনীর বাঁশবাড়িয়া – পােড়াপাড়ার মধ্যবর্তি স্থানে দূরপাল্লার ২টি যানবাহন সড়ক থেকে ছিটকে পড়ে গাছের সাথে ধাক্কা লাগে। তবে হতাহত হয়নি। এ দূর্ঘটনার কারণে ১ কিঃ মি: রাস্তা জুড়ে যানজটের সৃষ্টি হয়।

প্রতিনিয়ত আবাদি জমি থেকে মাটি কেটে সড়ক দিয়ে মাটি বহন করে সড়কগুলাে ডাসবিনে পরিণত হলেও প্রশাসন যেনাে দেখেও দেখেনা। এ থেকে কবে পরিত্রাণ পাবাে এমন প্রশ্ন জনসাধারণের।