ফিরোজ সুলতান, ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি : ঠাকুরগাঁওয়ে স্কিপিং বা দড়ি লাফে গিনেজ বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে নাম উঠানোয় রাসেলকে শুভেচ্ছা প্রদান করেছে জেলা ক্রীড়া সংস্থা।

শনিবার (৩১ জুলাই) শহীদ মোহাম্মদ আলী ষ্টেডিয়ামে এ শুভেচ্ছা বিনিময় অনুষ্ঠিত হয়।

জেলা ক্রীড়া সংস্থার আয়োজনে অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক মাসুদুর রহমান বাবু, প্রেস ক্লাবের সভাপতি মনসুর আলী, জেলা ফুটবল এসোসিয়েশনের সভাপতি প্রবীর কুমার গুপ্ত বুয়া, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সদস্য সাজিদ আহমেদ রানা, রাসেলের স্কুল শিক্ষক মোতাহার হোসেন প্রমুখ। এ সময় উপস্থিত ছিলেন স্বনামধন্য ফুটবলার মনোয়ার হোসেন লেবিন, মানস রায়সহ জেলার বিভিন্ন ইভেন্টের নারী খেলোয়াড়বৃন্দ। পরবর্তিতে রাসেলকে জেলা ক্রীড়া সংস্থার পক্ষ থেকে বড় পরিসরে সংবর্ধনা প্রদান করা হবে বলে জানান ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক মাসুদুর রহমান বাবু।

উল্লেখ্য, সদর উপজেলার রহিমানপুর ইউনিয়নের সিরাজপাড়া গ্রামের বজলুর রহমানের ছেলে রাসেল স্কিপিংয়ে ৩০ সেকেন্ডে ১৪৫ বার লাফিয়ে বিশ্ব রেকর্ড গড়েন। ২০১৯ সালে গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে চ্যালেঞ্জ করে আবেদন করে রাসেল। স্কিপিং রোপের ওপর দুটি বিষয়ে সে চ্যালেঞ্জ করেছিলো। একটি ৩০ সেকেন্ডের অন্যটি ১ মিনিটের ওপর। এক পায়ে ৩০ সেকেন্ড স্কিপিং রোপে ১৪৪ বার লাফানোর বিশ্ব রেকর্ড থাকলেও রাসেল করেছেন ১৪৫ বার। আর ১ মিনিটে এক পায়ে ২৫৬ বার লাফানোর বিশ্ব রেকর্ড থাকলেও রাসেল পেড়েছেন ২৫৮ বার। গত বৃহস্পতিবার ঠাকুরগাঁও পোস্ট অফিসের মাধ্যমে গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসের সনদপত্র হাতে পায় রাসেল।