গোবিন্দগঞ্জ(গাইবান্ধা)থেকে তাজুল ইসলাম প্রধানঃ গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু। শিশু সন্তান নিয়ে স্বামী পলাতক। মৃত্যুর পর বাড়িতে বিষধর সাপের অবস্থান নিয়ে এলাকায় চা ল্যের সৃষ্টি হয়েছে। মৃত্যুর কারন সনাক্ত করতে পুলিশ লাশ মর্গে প্রেরণ করেছে।

জানা গেছে, গত ১৬ মার্চ মঙ্গলবার দিবাগত রাতে উপজেলার হরিরামপুর ইউনিয়নের হরিরামপুর গ্রামে এ ঘটনটি ঘটেছে। রহস্যজনক মৃত্যুর শিকার ওই গ্রামের আলব উদ্দিনের ছেলে সাজু মিয়ার স্ত্রী শাপলা বেগম (৩৫)। এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, সাজু মিয়ার সাথে পাশ্ববর্তী তালুককানুপুর ইউনিয়নের কমল নারায়নপুর মথুরাপুর গ্রামের সাইদুল ইসলামের কন্যা শাপলার সাথে বিয়ে হয়। তাদের ১০ থেকে ১২ দিনের এক সন্তান রয়েছে।
অনেকেই বলছেন, শাপলার মৃত্যু হয়েছে সাপে কেটে। কেননা সকাল থেকে একটি বিষাক্ত সাপ ঘরের বিভিন্ন স্থানে দেখা গেছে। সাপটি উদ্ধারে স্থানীয়ভাবে চেষ্টা করলেও বর্তমানে সাপটি সাজু মিয়ার ঘরের মধ্যে অবস্থান নিয়েছে। এদিকে অনুসন্ধানে জানা যায়, সাজু মিয়ার সাথে প্রায়ই শাপলার ঝগড়া বিবাদ ও মারপিটের ঘটনা ঘটত। অনেকেই সন্দেহ প্রকাশ করেছেন যে এটি পরিকল্পিত হত্যাকান্ড। তাকে হত্যার পর বাড়িতে সাপ এনে সবার দৃষ্টি অন্য দিকে নেয়ার চেষ্টা চলছে।

এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত গোবিন্দগঞ্জ থানা পুলিশের কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে প্রাথমিক তদন্ত ও লাশ উদ্ধারের ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। তবে কীভাবে শাপলার লাশের ময়না তদন্তের জন্য র্মগে প্রেরন করেছে।