গোবিন্দগঞ্জ(গাইবান্ধা) প্রতিনিধি
গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার রামকৃষ্ণ বর্মনের তত্ত্বাবধানে একযোগে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে ১২০টি বাড়ি নির্মাণ কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে। প্রতিটি ভুমিহীন ও গৃহহীন পরিবারের জন্য থাকছে দুই কক্ষ বিশিষ্ট আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্বলিত রঙিন টিনের দোচালা ও সেমিপাকা ঘর।

সম্প্রতি রংপুর বিভাগের অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (রাজস্ব) আবু তাহের মো. মাসুদ রানা গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার সাপমারা ইউনিয়নের নাসিরাবাদ ও কাটাবাড়ি ইউনিয়নের দুধিয়া গ্রামে নির্মাণাধীন ঘরের কাজ পরিদর্শন এবং উপকারভোগীদের সাথে কথা বলেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার রামকৃষ্ণ বর্মন, সহকারী কমিশনার (ভুমি) নাজির হোসেন ও প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা জহিরুল ইসলামসহ স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।


অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার আবু তাহের মো. মাসুদ রানা বলেন, মুজিব শতবর্ষে ভুমিহীন-গৃহহীনদের পুনর্বাসনের লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার আশ্রয়ন-২ প্রকল্পের আওতায় সারাদেশে ঘর নির্মাণ করা হচ্ছে। গোবিন্দগঞ্জ উপজেলাতেও ১২০টি ভুমিহীন-গৃহহীন পরিবারকে পুনর্বাসনের জন্য ১২০টি ঘর নির্মাণ কাজ অব্যাহত রয়েছে।

পরবর্তীতে এসব পরিবারকে ঘর প্রদানের পাশাপাশি আয়-রোজগারের জন্যও ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে তিনি জানান।


এব্যাপারে গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার রামকৃষ্ণ বর্মন বলেন, উপজেলার জনপ্রতিনিধি, ভুমি ও প্রকল্প অফিসের সমন্বয়ে এই আশ্রয়ণ প্রকল্পে স্থান নির্বাচন করা হয় এবং উপজেলার ভুমিহীন ও গৃহহীনদের আবেদনের প্রেক্ষিতে তাদের মাঝে এ ঘর বরাদ্দ দেয়া হবে। ইতোমধ্যে তাদের তালিকা প্রায় সম্পন্ন হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী আগামী ২৩ তারিখে বাড়ির চাবি র্কক্রমের উদ্বোধন করবেন।

এর পর পরই এই উপজেলার সুবিধাভোগীদের মাঝে বাড়ির চাবি হস্তান্তর করা হবে।