এস কে মুকুল, জয়পুরহাট প্রতিনিধি: গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ থেকে ছিনতাইকৃত ৭টি মহিষসহ একজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে আক্কেলপুর থানা পুলিশ। মহিষগুলি উপজেলার তিলকপুর এলাকায় থেকে উদ্ধার করা হয়েছে।
আক্কেল পুর থানা সূত্রে জানা গেছে, গত রবিবার দিবাগত গভীর রাতের কোন এক সময় উপজেলার তিলকপুর ইউনিয়নের নূরনগরটু এলাকায় ৭ টি মহিষ বাধা রয়েছে। এসময় বগুড়ার আদমদিঘী উপজেলার কাল্লাগাড়ি গ্রামের সুজন নামের এক যুবক তিলকপুর মাটিয়া কুড়ি এলাকার সাইফুল ইসলাম (২৮) নামের ব্যক্তিকে এক হাজার টাকার বিনিময়ে সুজনের বাড়িতে মহিষগুলি পৌঁছে দেওয়ার চুক্তি করে। এসময় মহিষ গুলি নিয়ে যাওয়ার সময় স্থানীয়রা গতিবিধি সন্দেহ জনক হলে মহিষসহ তাকে আটক করে আক্কেলপুর থানায় খবর দেয়। খবর পেয়ে থানা পুলিশ ৭টি মহিষসহ তিলকপুর মাটিয়া কুড়ি এলাকার নুর ইসলামের ছেলে সাইফুল ইসলাম (২৮) কে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করে থানায় নেয়।
মহিষ ব্যাবসায়ী আতোয়ার রহমানের পিতা মফিরুল ইসলাম বলেন, রবিবার ১আগষ্ট সারিয়াকান্দির চর এলাকা থেকে আমার ছেলে আতোয়ার ৭টি মহিষ ক্রয় করে ট্রাক যোগে গাইবান্ধা জেলার গোবিন্দগঞ্জ এলাকার নিজ গ্রাম পিয়ারাপুরে নিয়ে আসার সময় রাতে গোবিন্দগঞ্জ থানা এলাকার ফঁসিতলা নামক স্থানে পৌঁছলে দশ থেকে বারো জন দূর্বৃত্ত ট্রাকের পথরোধ করে ট্রাকসহ ৭টি মহিষ ছিনতাই করে। এসময় আমার ছেলে সহ ট্রাক চালক ও হেলপারকে মারপিট করে পাশের জমিতে বেঁধে ফেলে রাখে। আমরা থানা থেকে খবর পেয়ে আক্কেলপুর থানায় মহিষগুলি নিতে আসি’
আক্কেলপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সাইদুর রহমান বলেন, ‘আমরা সকালে খবর পেয়ে উপজেলার তিলকপুর থেকে ৭টি মহিষসহ একজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। আইনি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে মহিষগুলি হস্তান্তর করা হবে’।