গোবিন্দগঞ্জ(গাইবান্ধা) : গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে স্কুল ছাত্র ও ভ্যান চালক হত্যা কান্ডের মামলা হলেও এখন পর্যন্ত কোন আসামীকে গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ।

জানা গেছে,১৫ সেপ্টেম্বর গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার শাহপাড়া খলসি এলাকার গ্রাম পুলিশ সাদা ফলের স্কুল পড়–য়া ছাত্র শ্যামল(১৫)কে দুবৃর্ত্তরা হত্যার উদ্দেশ্যে মারপিট করে এবং মৃত্যু নিশ্চিত ভেবে বাড়ীর নিকট ডোবায় ফেলে রেখে যায়।পরদিন ১৬ সেপ্টেম্বর লোকজন ডোবা থেকে অজ্ঞান অবস্থায় উদ্ধার করে বগুড়া (শজিমেক) হাসপাতালে ভর্তি করলে সেখানে চিকিৎসাধীন ঐদিনেই শ্যামলের মৃত্যু হয়।
এদিকে ১২ সেপ্টেম্বর বিকালে গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার শাখাহার ইউনিয়নের পিয়ারাপুর গ্রামের আলাল উদ্দীন প্রামাণিক এর পুত্র দিলবর প্রামাণিক (১৬)প্রতিদিনের ন্যায় ঐদিন বিকালে ভ্যান/রিক্সা নিয়ে বেড় হলে রাতে আর বাড়ী ফিরেনি।ধারনা করা হচ্ছে ছিনতাইকারীরা ভ্যানচালক কে হত্যা করে ভ্যান নিয়ে পালিয়ে যায়। স্থানীয় লোকজন পরদিন সকালে বটতলা গ্রামের পাশ্ববর্তী টকোরগাড়ী নামক স্থানে দিলবর(১৬)এর মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখে থানা পুলিশকে খবর দিলে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরন করেন।


দু’টি হত্যা কান্ডে পৃথক হত্যা মামলা হলেও আজ পযর্ন্ত থানা পুলিশ কোন আসামীকে গ্রেফতার করতে পারেনি। এব্যাপারে গোবিন্দগঞ্জ থানার অফিসার ইনর্চাজ (ওসি)একেএম মেহেদী হাসান জানা নিয়েছেন,হত্যাকান্ডের সাথে জড়িতদের আমরা চিহ্নিত করেছি। আসামী গ্রেফতারে অভিযান চলছে