সৈয়দ মিঠুন, ঘাটাইল প্রতিনিধি: ঘাটাইল উপজেলার রতনপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠের ঠিক মাঝখান দিয়ে পৌর কর্তৃপক্ষ রাস্তা নির্মাণ করছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের কোনো প্রকার অনুমতি বা সম্মতি ছাড়াই রাস্তাটি নির্মাণ করা হচ্ছে। রাস্তা নির্মাণ বন্ধ করতে ইতিমধ্যে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর আবেদন করেছেন উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে গত ২৯ জুলাই প্রেরিত আবেদনপত্র থেকে জানা যায়, রতনপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের খেলার মাঠের মাঝ বরাবর ঘাটাইল পৌরসভা একটি পাকা রাস্তা নির্মাণ করছে। এর ফলে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের খেলাধুলার জায়গা নষ্ট হচ্ছে। অপর দিকে এতে করে বিদ্যালয়ের সৌন্দর্যও নষ্ট হচ্ছে। উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মো. মাসুদুর রহমান রাস্তার নির্মাণ কাজ বন্ধ করার জন্য ইউএনও’র কাছে লিখিত আবেদন জানিয়েছেন।

শুক্রবার সরেজমিনে রতনপুর সরকারি স্কুলে গিয়ে দেখা যায়, বিদ্যালয়ের মাঝ দিয়ে প্রায় এক ফুট উচু করে পাকা রাস্তা নির্মাণ করা হচ্ছে। ফলে সুপরিসর মাঠটি দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে যাবে। এ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. নজরুল ইসলাম বলেন, রাস্তা নির্মাণের ব্যাপারে আমি পরিচালনা পরিষদের সভাপতিকে বলেছি এবং উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তাকে লিখিতভাবে জানিয়েছি। রাস্তা নির্মাণের কারণে মাঠের কোনো অংশেই শিক্ষার্থীরা অনায়াসে খেলাধুলা করতে পারবে না বলে তিনি জানান।

স্কুল কর্তৃপক্ষ কিংবা উপজেলা শিক্ষা অফিসের অনুমতি বা সম্মতি ছাড়া রাস্তা নির্মাণ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে ঘাটাইল পৌরসভার মেয়র শহীদুজ্জামান খান আজকের কাগজকে বলেন, স্কুল কমিটির সভাপতি, শিক্ষা কর্মকর্তা সম্মিলিতভাবে আমাকে রাস্তা করার অনুমতি দিয়েছেন। এখন কেনো তারা অস্বীকার করছেন আমি জানি না। গত পড়শুদিন (বৃহস্পতিবার) শিক্ষা কর্মকর্তার সাথে রাস্তার ব্যাপার কথা হয়েছে। তিনিতো আমাকে রাস্তা করতে নিষেধ করেন নাই।

উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মো. মাসুদুর রহমান এ প্রসঙ্গে বলেন, আমি মাঠের মাঝখান দিয়ে রাস্তা না করে মেয়রকে দুটো বিকল্প প্রস্তাব দিয়েছি। এখনও বিকল্প প্রস্তাবমতো রাস্তা করলে কোনো সমস্যা হবে না।

উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তার লিখিত আবেদন প্রসঙ্গে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) ফারজানা ইয়াসমি বলেন, আমি আবেনপত্র পেয়ে আজ বিকাল পাঁচটায় (শুক্রবার) বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে আমার কার্যালয়ে ডেকেছি। তাদের সাথে কথা বলে পরবর্তী পদক্ষেপ নেয়া হবে।