মনোয়ার বাবু, (ঘোড়াঘাট) দিনাজপুর প্রতিনিধিঃ 

দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলায় প্রথম কোটার করোনার ভ্যাকসিন (কোভিড-১৯) শেষ হবার পর আবার নতুন করে তিনশত নিবন্ধিত জনসাধারণের মধ্যে টিকা দেওয়া শুরু হয়েছে।
গত ৭ ফেব্রুয়ারি থেকে করোনার ভ্যাকসিন চল্লিশোর্ধ জনসাধারণ মধ্য নিবন্ধনের মাধ্যমে দেওয়া শুরু হয়। এতে প্রথম কোটায় ৩৮৪০ টি টিকা প্রতিদিন ১০০ থেকে ১২০ জন ব্যক্তিকে প্রদান করা হয়।পরবর্তীতে চাহিদা অনুযায়ী আরও ১০০টি টিকা আনা হলে তাও নিবন্ধিতদের মাঝে দেওয়া পর শেষ হয়ে যায়।দিন দিন নিবন্ধিত ব্যক্তিদের টিকা নেবার চাহিদা বেড়ে যাওয়ায় উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার নূর নেওয়াজ আহমেদ এর চেষ্টায় আবারো ৩০০ টি টিকা উপজেলার হাসপাতাল, ৩ টি উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্র ও ১টি কমিউনিটি ক্লিনিক সহ পৌর সভা ও উপজেলার চার টি ইউনিয়নে মোট পাঁচ টি স্থানে বুথের মাধ্যমে জনসাধারণের দোড়গড়ায় টিকা পৌছে দেবার ব্যবস্তা করেছেন। 
এবিষয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার নূর নেওয়াজ আহমেদ এর সাথে যোগাযোগ করলে তিনি জানান,প্রথম কোটায় ৩৮৪০ টি তারপর ১০০ টি টিকা প্রদান করার পরও চাহিদা থাকায় আরও ৩০০ টি টিকা দিনাজপুর সিভিল সার্জন স্যারের সহযোগীতায় উপজেলার ৫ টি স্থানে বুথের মাধ্যমে কাঙ্খিত সেবা পৌছে দেবার ব্যবস্তা করেছি।চাহিদা অনুযায়ী প্রয়োজনে আরও কোভিড -১৯ টিকা আনা হবে বলে তিনি নিশ্চিত করেন।এসময় তিনি সকল কে মাস্ক পরিধান করা সহ করোনা রোধে সকল প্রকার স্বাস্থ্য সেবা মেনে চলার জন্য সকলের প্রতি আহবান করেন।