মনোয়ার বাবু (ঘোড়াঘাট) দিনাজপুর প্রতিনিধিঃ “আশ্রয়ণের অধিকার, শেখ হাসিনার উপহার” আজ শনিবার সারা দেশে গৃহহীন-ভূমিহীন ৬৬ হাজার ১৮৯ পরিবারের মাঝে গৃহ বিতরণের মাধ্যমে পৃথিবীর ইতিহাসে এক অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করলো বাংলাদেশ। ২ শতাংশ খাসজমির মালিকানা দিয়ে বিনা পয়সায় দুই কক্ষবিশিষ্ট ঘর ‘প্রধানমন্ত্রীর উপহার’ হিসেবে হস্তান্তর করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এত মানুষকে একসঙ্গে বিনামূল্যে গৃহ প্রদানের এ ঘটনা পৃথিবীর ইতিহাসে বিরল। এর মধ্য দিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আরেকটি দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীতে দেশের ভূমিহীন-গৃহহীন ৮ লাখ ৮৫ হাজার ৬২২ পরিবারের তালিকা করে তাদের ঘর করে দেওয়ার ঘোষণা দেন প্রধানমন্ত্রী, যা পর্যায়ক্রমে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন । শনিবার সকাল সাড়ে ১০টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ৪৯২ উপজেলায় যুক্ত হয়ে গৃহহীন-ভূমিহীনদের মুজিববর্ষের এ উপহার তুলে দেন। আশ্রয়ণ প্রকল্প-২ এর আওতায় মাত্র কয়েক মাসের নিরলস প্রচেষ্টায় এ প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হল। দ্বিতীয় ধাপে আরও প্রায় ১ লাখ পরিবারকে ঘর উপহার হিসেবে দেওয়া হবে আগামী মাসের মধ্যেই।

এদিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উদ্ভোধনের পর পরই দিনাজপুর জেলার ঘোড়াঘাট উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুর রাফে খন্দকার শাহানশা ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার রাফিউল আলম ৫৬৭ গৃহহীন পরিবারের মধ্যে তাদের ঘরের কাগজ এবং চাবি হস্তান্তর করেন।

উল্লেখ্য,ভূমিহীন-গৃহহীনদের যে ঘরগুলো দেওয়া হয়েছে,প্রত্যেক ঘরের জন্য ১ লাখ ৭১ হাজার টাকা খরচ হয়েছে এবং সেগুলোর প্রত্যেকটিতে রয়েছে দুটি শোবার ঘর, একটি রান্নাঘর, একটি টয়লেট এবং বারান্দা। প্রত্যেককে তার জমি ও ঘরের দলিল নিবন্ধন এবং নামজারিও করে দেওয়া হয়েছে।