মনোয়ার বাবু, ঘোড়াঘাট প্রতিনিধি: আগামী ২ নভেম্বর প্রথমবারের মতো ইভিএম পদ্ধতিতে অনুষ্ঠিত হচ্ছে ঘোড়াঘাট পৌরসভার বহুল প্রতিক্ষিত নির্বাচন। উক্ত নির্বাচনে পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ডে মোট ৯টি ভোট কেন্দ্র রয়েছে। তারমধ্যে উপজেলা প্রশাসন কয়েকটি ভোট কেন্দ্রকে ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে চিহিৃত করেছেন। এসব ভোট কেন্দ্রে অবাধ সুষ্ঠ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন উপহার দেয়ার লক্ষ্যে ইতোমধ্যে প্রয়োজনীয় প্রস্তুতিও নিচ্ছেন উপজেলা প্রশাসন। এরই অংশহিসেবে বৃহস্পতিবার ৭ অক্টোবর ঘোড়াঘাট পৌরসভার ভোট কেন্দ্র পরিদর্শন করেছেন ঘোড়াঘাট উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) রাফেউল আলম ও সিনিয়র জেলা নির্বাচন অফিসার শাহিনুর ইসলাম প্রামাণিক।

এদিন ঘোড়াঘাট পৌরসভার বিভিন্ন ওয়ার্ডে অবস্থিত সম্ভাব্য ভোট কেন্দ্র তথা কলেজ,উচ্চ বিদ্যালয়, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং মাদরাসা সমুহের বর্তমান পেক্ষাপট সরেজমিনে
যান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রাফেউল আলম। এসময় তিনি পরির্দশনপুর্বক ভোট গ্রহনের নিমিত্তে এসব কেন্দ্রগুলোকে ব্যবহার উপযোগী করতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশনাও দিয়েছেন। পরিদর্শনকালে ইউএনও’র সঙ্গে ঘোড়াঘাট উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) মাহমুদুল হাসান,উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা শাহজাহান মানিক,ঘোড়াঘাট থানা অফিসার ইনচার্জ আবু হাসান কবির পিপিএম(সেবা) ছাড়াও প্রশাসনের অন্যান্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠিতব্য ঘোড়াঘাট পৌরসভা নির্বাচনে নিচ্ছিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা ও সুষ্ঠু নির্বাচনী পরিবেশ নিশ্চিতে সর্বোচ্চ সংখ্যক আইনশৃঙ্খলা বাহিনী থাকবে মন্তব্য করে ঘোড়াঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রাফেউল আলম বলেন, অনুষ্ঠিতব্য ঘোড়াঘাট পৌরসভা নির্বাচন ‘সুষ্ঠু, অবাধ, গ্রহণযোগ্য পরিবেশে সম্পন্ন করতে প্রশাসন যাবতীয় প্রস্তুতি নিচ্ছে। পাশাপাশি সুন্দর পরিবেশে ভোট গ্রহনের জন্য কেন্দ্রগুলোকে ব্যবহার উপযোগী করতে সরেজমিন পরিদর্শনপুর্বক প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে।

আগামী ২ নভেম্বর অনুষ্ঠিতব্য ঘোড়াঘাট পৌরসভার নির্বাচনে ৯টি ওয়ার্ডে ভোট দেবেন মোট ১৯ হাজার ৯৪৭ জন ভোটার। তারমধ্যে পুরুষ ভোটার ৯ হাজার ৭৫৬ জন এবং নারী ভোটার রয়েছে ১০ হাজার ১৯১জন।