চকরিয়া (কক্সবাজার) প্রতিনিধিঃ

চকরিয়ায় সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক) টিআইবির তথ্য অধিকার বিষয়ক ক্যাম্পেইন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

২৩ মার্চ (বুধবার) উপজেলা প্রশাসন চকরিয়ার সহায়তায় উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গনে তথ্য অধিকার বিষয়ক ক্যাম্পেইন
আয়োজন করেছে সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক)। উপজেলা প্রশাসন কর্তৃক
আয়োজিত চলমান স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন উপলক্ষ্যে মুক্তির উৎসব ও সুবর্ণজয়ন্তী মেলা-২০২২ এর অংশ হিসাবে ক্যাম্পেইনের আয়োজন করা হয়।
দিনব্যাপী অনুষ্ঠিত তথ্য অধিকার বিষয়ক ক্যাম্পেইন এ সকাল ১০ টা থেকে বেলা ২টা পর্যন্ত চলে তথ্য চেয়ে আবেদনের অনুশীলন ও সরকারী বিভিন্ন অফিসে তথ্য চেয়ে আবেদন। সচেতন
নাগরিক কমিটি (সনাক), টিআইবি’র ইয়েস গ্রুপের সদস্যরা বিভিন্ন স্কুল, কলেজ থেকে আগত ছাত্র-ছাত্রী এবং সাধারণ জনগনকে তথ্য চেয়ে আবেদনের ফরম পূরন পদ্ধতি শিখিয়ে দেন। পাশাপাশি
অনেকেই এখান থেকে ফরম পূরণ করে সরাসরি বিভিন্ন সরকারী অফিসে তথ্য চেয়ে আবেদনের ফরম জমা
দেন।
বিকাল ৩ টায় শুরু হয় কলেজ শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে তথ্য অধিকার বিষয়ক কুইজ প্রতিযোগিতা।
উক্ত কুইজ প্রতিযোগিতায় চকরিয়া সিটি কলেজ, চকরিয়া আবাসিক মহিলা কলেজ, চকরিয়া সরকারী
কলেজ এবং ডুলাহাজারা ডিগ্রী কলেজের ৩ জন করে শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করেন। প্রতিযোগিতায়
ডুলাহাজারা ডিগ্রী কলেজের শিক্ষার্থীরা চ্যাম্পিয়ন ও চকরিয়া আবাসিক মহিলা কলেজের শিক্ষার্থীরা
রানার্স আপ হওয়ার গৌরব অর্জন করে। এছাড়াও বিকাল ৪টা থেকে ৫টা পর্যন্ত উপস্থিত সকলের অংশগ্রহণে উন্মুক্ত কুইজ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়।
বিকাল ৪:৩০ মিনিটে অনুষ্ঠিত হয় তথ্য অধিকার বিষয়ক জমজমাট বিতর্ক প্রতিযোগিতা।
বিতর্ক প্রতিযোগিতায়  মডারেটর হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন-সহকারী কমিশনার (ভুমি) মোঃ রাহাত উজ জামান।
বিতর্কের বিষয় ছিল ” অবাধ তথ্য প্রাপ্তি সুশাসনের প্রধান শর্ত”. উক্ত বিতর্ক প্রতিযোগিতায় বিষয়ের পক্ষে অবস্থান ছিল চকরিয়া গ্রামার স্কুল এবং
বিপক্ষে ছিল চকরিয়া কোরক বিদ্যাপীঠ। উভয় দলের চমৎকার বক্তব্য ও যুক্তি-তর্ক উপস্থাপন শেষে বিপক্ষ দল
চকরিয়া কোরক বিদ্যাপীঠ বিজয়ী হওয়ার গৌরব অর্জন করে এবং বিজয়ী দলের দলনেতা সেলিয়ার
হোসাইন সেলভিয়া শ্রেষ্ঠ বক্তা হিসাবে মনোনিত হয়।
প্রতিযোগিতা শেষে কলেজ ভিত্তিক কুইজ, উন্মুক্ত কুইজ ও বিতর্ক প্রতিযোগিতার বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার ও ক্রেস্ট প্রদান করা হয়। পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন- উপজেলা নির্বাহী অফিসার জে পি দেওয়ান। তিনি বলেন- স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন উপলক্ষ্যে মুক্তির উৎসব ও সুবর্ণজয়ন্তী মেলা- ২০২২ এর অন্যতম আকর্ষন ছিল সনাক-টিআইবি’র আজকের আয়োজন। দৃর্নীতির বিরুদ্ধে সামাজিক
আন্দোলনের অন্যতম শর্ত হলো তথ্যের উন্মোক্ততা। সনাক তাদের আজকের আয়োজনের মাধ্যমে ছাত্র-ছাত্রী ও
সাধারণ জনগনদের তথ্যের প্রয়োজনীয়তা ও পদ্ধতি সম্পর্কে অবগত করতে সক্ষম হয়েছেন বলে আমি মনে
করি। পুরস্কারবিতরণী অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন-টিআইবি’র চট্টগ্রাম ক্লাস্টারের সমন্বয়কারী জনাব মো: জসিম উদ্দিন ও সচেতন নাগরিক
কমিটি (সনাক), টিআইবি’র সভাপতি জনাব বুলবুল জান্নাত শাহিন ও সনাকের অন্যান্য সদস্যবৃন্দ।