বেল্লাল হোসেন নাঈম, স্টাফ রিপোর্টারঃ নোয়াখালীর চাটখিল উপজেলার অঞ্জলি রানী ঘোষ (৪২) এক নারী হত্যার তিন বছর পর মামলার পলাতক এই দুই আসামিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)।

গতশনিবার দিবাগত (৭ আগস্ট) রাত্রে কুমিল্লার লালমাই থানাধীন বাগমারা সৈয়দপুর গ্রামের রফিক মিয়ার বাড়িতে বিশেষ অভিযান চালিয়ে তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়।
গ্রেফতাররা হলেন- চাটখিলের ছয়ানী টবগা গ্রামের মৃত গিরেন্দ্র চন্দ্র ঘোষের ছেলে হারাধন চন্দ্র ঘোষ (৫০) ও হারাধন চন্দ্র ঘোষের ছেলে সাগর চন্দ্র ঘোষ (২৫)।

সিআইডি জানা যায়, ২০১৮ সালের ২৫ এপ্রিল তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে যতিন্দ্র ঘোষের বাড়িতে অঞ্জলি রানী ঘোষকে পিটিয়ে হত্যা করে আসামিরা। এ ঘটনায় নারায়ণ চন্দ্র ঘোষ (৫০) বাদী হয়ে চাটখিল থানায় হত্যা মামলা দায়ের করলে পুলিশ তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয়।

কিন্তু বাদীর নারাজির পর আদালত মামলাটির অধিকতর তদন্তের জন্য নোয়াখালীর সিআইডির কাছে হস্তান্তর করে। আসামিরা গ্রেফতার এড়াতে দীঘদিন বিভিন্নস্থানে পালিয়ে ছিলেন।

নোয়াখালী জেলা সিআইডির পুলিশ পরিদর্শক মুহাম্মদ রফিকুল ইসলাম গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, আসামিরা অঞ্জলি রানী ঘোষের হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত থাকার বিষয়টি প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকারোক্তি দেয়। তাদেরকে রবিবার (৮ আগস্ট) বিকেলে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।