নিজস্ব প্রতিবেদকঃ এবার বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সহায়তায় উদ্ভাবিত হলো থিফ গার্ড। এবার চোরেরা আর মোবাইল চুরি করে পার পাবে না। নিমিষেই দেশের যেকোনো জায়গায় চুরি যাওয়া মোবাইলের অবস্থান শনাক্ত করা যাবে এবং এই অসম্ভবকে সম্ভব করেছেন ‘সাইদুর রহমান’ নামে এক প্রযুক্তি উদ্যোক্তা। নিজের মোবাইল চুরি হওয়ার আক্ষেপ থেকে মোবাইল অ্যাপ ‘থিফ গার্ড’ বানিয়ে ফেলেছেন তিনি। থিফ গার্ড অ্যাপটি ব্যবহারে গ্রাহককে প্রতিবছর ৩৫০ টাকা মূল্য প্রদান করতে হবে। অ্যাপটির ফিচারগুলো আন্তর্জাতিক মানের এবং শিগগিরই বাজারে আসছে অ্যাপটি বলে জানিয়েছেন প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞরা।

আপনি রাস্তায় বের হয়েছেন, পথিমধ্যেই হুট করে আপনার অ্যান্ড্রয়েট মোবাইল ফোনটি চুরি হয়ে গেল! একইসাথে নিত্যসঙ্গী মোবাইল ফোনের সব ব্যক্তিগত তথ্যও হারিয়ে ফেললেন! এমন পরিস্থিতিতে আপনি কি করবেন? আইনি ব্যবস্থা নিয়ে প্রাণপণে হন্য হয়ে খুঁজতে খুঁজতে হয়তো এক সময় মোবাইল ফিরে পাবার আশাই ছেড়ে দিলেন আপনি। কিন্তু নিজের জীবনে এমন ঘটনা থেকে শিক্ষা নিয়ে সমাধান খুঁজতে গিয়ে সাইদুর রহমান নামে এক উদ্যোক্তা কয়েকজনকে সাথে নিয়ে তৈরি করে ফেললেন থিফ গার্ড নামে একটি মোবাইল অ্যাপ যা চুরি হয়ে যাওয়া মোবাইল শনাক্ত করবে।

সফটালোজি’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক সাইদুর রহমান বলেন, আমার চুরি হয়ে যাওয়া ওই ফোনে অনেক গুরুত্বপূর্ণ বিষয় ছিল এবং সেটা আমাকে খুবই কষ্ট দিয়েছে।

আইটি কোম্পানি সফটালোজি মোট ১৩ টি ফিচার সমৃদ্ধ এই থিফ গার্ড অ্যাপ বাজারে আনছে। থিফগার্ড ডট কম থেকে ডাউনলোড করে শুরুতে ইউজার নাম, মোবাইল নম্বর, ইমেইল, পাসওয়ার্ড দিয়ে অ্যাপ চালু করতে হবে। পরবর্তীতে যে কেউ আপনার মোবাইলে ভুল পাসওয়ার্ড দিতে চাইলেই বেজে উঠবে অ্যালার্ম। এমনকি চাইলেই কেউ সিম খুলতে বা মোবাইল বন্ধ করতে পারবে না ; বরং তৎক্ষনাৎ মোবাইল ফোনটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে ছবি ও লোকেশন পাঠিয়ে দিবে আপনার ইমেইল এড্রেসে।

সফটালজির পরিচালক জাকির হোসেন বলেন, থিফ গার্ড এপসটি এখন পরীক্ষামূলক পর্যায়ে রয়েছে। আশা করছি যে, সব ধরনের সমস্যা অতিক্রম করে আমরা এগিয়ে যেতে পারবো।

উল্লেখ্য যে, প্রথমিকভাবে অ্যান্ড্রয়েড ৭ থেকে ১২ ভার্সনে কাজ করবে থিফ গার্ড অ্যাপটি। কিন্তু ধীরে ধীরে আইফোনে ব্যবহার উপযোগী করতে চান উদ্যোক্তারা। এজন্য প্রতিনিয়ত কাজ করছেন একটি টিম। এতে ব্যবহারকারীদের সমস্যা সমাধানের জন্য কল সেন্টারও রয়েছে।