চুয়াডাঙ্গায় ২ দিনব্যাপী সাধু বাউল মিলনমেলা শুরু
জাতের ভেদাভেদ করেছি আমরা মানুষ
……………. এমপি ছেলুন জোয়ার্দ্দার

নিজস্ব প্রতিবেদক
শাহ্ সুফি সদর উদ্দিনের ২২তম পদার্পণ দিবস উপলক্ষে চুয়াডাঙ্গায় শুরু হয়েছে ২ দিনব্যাপী সাধু বাউল মিলনমেলা। সাধু মেলা উপলক্ষে আসনগ্রহণ, সন্ধ্যাপ্রদীপ সজ্জা, ভক্তি প্রার্থনা, পুষ্পাঞ্জলি অর্পণ, সাধু সমাবেশ, আলোচনাসভা ও সংগীত অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

চুয়াডাঙ্গায় ২ দিনব্যাপী সাধু বাউল মিলনমেলা শুরু
এ মেলার উদ্বোধন করেন চুয়াডাঙ্গা ১ আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সোলাইমান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন। মিলনমেলায় দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে ছুটে আসেন বাউল, সাধু ও ভক্তরা। এ উপলক্ষে বসেছে গ্রামীণ মেলা, খাবারের দোকান ও বই বিক্রি।

বৃহস্পতিবার (১৭ মার্চ) সন্ধ্যায় তরিকতে আহ্লে বাইতের আয়োজনে চুয়াডাঙ্গা পৌর এলাকার তালতলা ব্রিজ মোড় সদর মঞ্জিলে এ মিলনমেলা শুরু হয়। বৃহস্পতিবার সকাল থেকে সাধু বাউল মিলনমেলা স্থল তালতলা ব্রিজ মোড় সদর মঞ্জিলে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ছুটে আসেন সাধু, বাউল ও ভক্ত অনুসারীরা। নারী-পুরুষসহ সব বয়সের মানুষের পদচারণায় মুখরিত হয়ে উঠে সদর মঞ্জিল।
সাধু মেলা উপলক্ষে আসন গ্রহণ, সন্ধ্যাপ্রদীপ সজ্জা, ভক্তি প্রার্থনা, পুষ্পাঞ্জলি অর্পণ, সাধু সমাবেশ, আলোচনাসভা ও সংগীত অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। শুক্রবার পর্যন্ত চলবে মিলনমেলা।

প্রধান অতিথি সোলাইমান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন এমপি বলেন, মহামিলন, মহাসংঘ, মহাসমাবেশ এক বিশাল আয়োজন। যারা এ আয়োজন সার্থক, সফল করার জন্য দিন-রাত শ্রম দিয়েছেন ও দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে এখানে ছুটে এসেছেন তাদের ধন্যবাদ। আসলে আপনাদের ভেতরে যে গুণটা সবচেয়ে বেশি কাজ করে তা হল বিবাদে না জড়ানো। কাউকে ছোট মনে করেন না। নিজেদের মতো করে চলার চেষ্টা করেন। বিভিন্ন সময় তথাকথিত ধর্ম ব্যবসায়ীরা আপনাদের ওপর আঘাত হানে। সবাই লালনভক্ত বাউল। যে উদ্দেশ্য নিয়ে হাজির হয়েছেন তা পূর্ণ হবে। লালন যে পথ দেখিয়েছে মানুষের কোনো জাত নেই। জাতের ভেদাভেদ করেছি আমরা মানুষ। মেলার সফলতা কামনা করছি। আগামীতে বড় ধরনের আয়োজন হবে বলে আমার আশা।

সাধু বাউল মিলনমেলা অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রিয়াজুল ইসলাম জোয়ার্দ্দার টোটন, চুয়াডাঙ্গা জজকোর্টেও পাবলিক প্রসিকিউটর অ্যাডভোকেট বেলাল হোসেন, চুয়াডাঙ্গা পৌর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মোহা. আলাউদ্দিন হেলা।

এ ছাড়া উপস্থিত ছিলেন ওহিদ হোসেন চিশ্তি, চুয়াডাঙ্গা জেলা বাউল কল্যাণ সংস্থার সভাপতি মহিউদ্দিন ফকির, সাধারণ সম্পাদক মোসলেম উদ্দিন প্রমুখ। সভাপতিত্ব করেন তরিকতে আহ্লে বাইত কেন্দ্রীয় সংসদের সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম বাদল।

ওহিদ হোসেন চিশ্তি বলেন, দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে মানুষ ছুটে আসেন। সাধু, বাউল ও ভক্তদের থাকা ও খাওয়ার ব্যবস্থা করা হয়। গানের আয়োজন হয়। মিলনমেলায় পরিণত হয়। ধর্ম-বর্ণ মিলে মানুষ এক সঙ্গে উৎসবে অংশগ্রহণ করেন।