ঈদযাত্রা নিরাপদ ও নির্বিঘ্ন রাখতে সাবধানতার সঙ্গে গাড়ি চালানোর জন্য সব ধরনের গাড়ি চালকদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন সড়ক পরিবহণ ও সেতুমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

জীবনের প্রতি মায়া রেখে, জীবনের সুরক্ষাকে অগ্রাধিকার দিয়ে মহাসড়কে নিয়ম মেনে যাতায়াতের আহ্বান জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, অনাকাঙ্ক্ষিত দুর্ঘটনা থেকে সবাইকে নিরাপদে থাকতে হবে।

শুক্রবার ওবায়দুল কাদের তার বাসভবনে ব্রিফিংকালে এ আহ্বান জানান।

ঈদযাত্রায় যানজট এড়াতে মহাসড়কের পাশে যেসব কুরবানির পশুর হাট রয়েছে, সেগুলোর পরিসর যেন কোনোভাবেই না বাড়ে- সেদিকে সংশ্লিষ্টদের সতর্ক নজরদারি করতে হবে। তিনি যানজট নিয়ন্ত্রণে জরুরি ও রপ্তানি পণ্য ছাড়া ট্রাক-কাভার্ডভ্যান নির্দিষ্ট সময়ের জন্য চলাচল বন্ধ রাখার আহ্বান জানান।

ওবায়দুল কাদের বলেন, এবারের ঈদযাত্রায় সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ করোনার ক্রমবর্ধমান সংক্রমণ। তাই সামান্য উদাসীনতা এবং স্বাস্থ্যবিধির প্রতি অবহেলা ভয়াবহ বিপর্যয় ডেকে আনতে পারে। পরিবহণে চলাচলের সময় বা ঈদের ছুটিকালীন মাস্ক পরতে হবে। কোভিড স্বাস্থ্যবিধির বিষয়ে সর্বোচ্চ সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে।

তিনি আরও বলেন, সামান্য অবহেলা পুরো পরিবারের অপরিমেয় ক্ষতির কারণ হতে পারে। তাই সবাইকে মাস্ক পরাসহ সর্বোচ্চ সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, কুরবানির পশুবাহী গাড়ি ধীরে চলায় এবং পথে বিভিন্ন স্থানে বিকল হওয়ায় কোথাও কোথাও যানজট সৃষ্টি হচ্ছে। এজন্য তড়িৎ ব্যবস্থা নেওয়ার মাধ্যমে গাড়ির চাকা সচল রাখার চেষ্টা করা হচ্ছে।

হাইওয়ে পুলিশ, জেলা পুলিশ, জেলা প্রশাসন, পরিবহণ, মালিক-শ্রমিকসহ সবাইকে নিজ নিজ প্রয়াস জোরদারের মাধ্যমে ঈদযাত্রা নির্বিঘ্ন করার আহ্বান জানান সড়কমন্ত্রী।