মোাঃ আল-আমিন, ঝালকাঠিঃ ঝালকাঠির নলছিটিতে ব্যবসায়ী ও যুবলীগকর্মী আসাদুজ্জামান খান পলাশকে (৩৩) কুপিয়ে হাতের কবজি ও পায়ের রগ কেটে দেওয়ার প্রতিবাদ ও হামলাকারীদের গ্রেপ্তার করে বিচারের দাবিতে মানবন্ধন করা হয়েছে। রবিবার সকাল ১১ টায় নলছিটি প্রেসক্লাবের সামনের ঘণ্টাব্যাপী এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়। এতে আহত আসাদুজ্জামান খান পলাশের স্বজন, যুবলীগ নেতাকর্মী ও প্রতিবেশীরা অংশ নেন। গত ৩ জানুয়ারি রাতে মোল্লারহাট ইউনিয়নের আমতলী গ্রামের সরকারি বাড়ির মোড়ে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে পলাশকে কুপিয়ে বাম হাতের কবজি ও পায়ের রগ কেটে দেয় প্রতিপক্ষরা। এ ঘটনায় ১২ জনকে আসামি করে গত ১৮ জানুয়ারি নলছিটি থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। আহত পলাশের বাবা এসকেন্দ্রার আলী খান। পলাশ ঢাকার পঙ্গু হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।
মানববন্ধনে অংশ নিয়ে আহত পলাশের ভাই রেজাউল ইসলাম ইমন অভিযোগ করেন, পলাশকে হত্যার উদ্দেশ্যে মোল্লারহাট ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক ও ইউপি সদস্য আক্কাস সরদার ও তাঁর লোকজন পরিকল্পিতভাবে হামলা করে। তিনি ভাগ্যের জোরে বেঁচে গেছেন। বর্তমানে আক্কাস বাহিনীর ভয়ে পরিবার নিয়ে আতঙ্কিত পলাশের পরিবার। বাইরে থাকা আসামিরা তাদের নানাভাবে হুমকি দিচ্ছেন বলেও অভিযোগ করেন তিনি।
এ ব্যাপারে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা নলছিটি থানার উপপরিদর্শক মো. জাহাঙ্গীর হোসেন জানান, আসামিদের মধ্যে ৬জন আত্মসমর্পণ করে কারাগারে রয়েছে। অন্যরা আত্নগোপনে রয়েছেন, তাদের গ্রেপ্তারের জন্য পুলিশের অভিযান চলমান রয়েছে।