আসিফ কাজল, ঝিনাইদহ থেকেঃ ঝিনাইদহের মহেশপুর সীমান্ত দিয়ে অবৈধ পথে ভারত থেকে বাংলাদেশে প্রবেশ কোন ভাবেই ঠেকানো যাচ্ছে না। বিজিবির নজরদারী সত্ত্বেও প্রায় প্রতিদিন অবৈধ পথে মানুষ পারাপার হচ্ছে। এ নিয়ে উদ্বিগ্ন ঝিনাইদহ জেলার স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা। এ ভাবে ভারত থেকে অনুপ্রবেশ ঠেকানো না গেলে করোনার ভারতীয় ধরণ ছড়িয়ে পড়ার প্রবল আশংকা তৈরী হচ্ছে। এদিকে ঝিনাইদহের মহেশপুর সীমান্ত দিয়ে অবৈধভাবে ভারত থেকে বাংলাদেশে আসার সময় নারীসহ ৪ জনকে আটক করেছে বিজিবি। মঙ্গলবার রাত থেকে বুধবার সকাল পর্যন্ত সীমান্তের মহেশপুরের মাটিলা ও বেতবাড়িয়া এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়। আটককৃতরা হলেন বরিশালের অগৈলঝাড়া উপজেলার রাজিহার গ্রামের হারান জয়দারের ছেলে পরেশ জয়দার (৫০), মেয়ে দিপালী জয়দার, নড়াইলের কালিয়া উপজেলার বড়নাল গ্রামের নিজাম মোল্লার ছেলে করিম মোল্লা (২৪) ও যশোরের চৌগাছা উপজেলার বেড়গোবিন্দ গ্রামের ষষ্টি বিশ্বাসের ছেলে সুরত বিশ্বাস (২৪)। মহেশপুর ৫৮ বিজিবির সহকারী পরিচালক নজরুল ইসলাম খান জানান, সীমান্তের তারকাটা বিহীন এলাকা থেকে অবৈধভাবে ভারত থেকে কয়েকজন ব্যক্তি বাংলাদেশে প্রবেশে করে। খবর পেয়ে বিজিবি তাদের আটক করে। আটককৃতদের বিরুদ্ধে মহেশপুর ৫৮ বিজিবির পক্ষ থেকে মামলা দায়ের করে নিকটস্থ মহেশপুর থানায় সোপর্দ করা হয়েছে। এদিকে ঝিনাইদহ সিভিল সার্জন সেলিনা বেগম বুধবার দুপুরে জানান, ভারত থেকে আসা মানুষের অনুপ্রবেশ ঠেকানো না গেলে করোনার ভারতীয় ধরণ ছড়িয়ে পড়ার প্রবল আশংকা কিন্তু থেকেই যাচ্ছে। তিনি বলেন এর আগে অবৈধ ভাবে ভারত থেকে আসা ২৮ জনের পরীক্ষা করে ৩ জনের করোনা পজিটিভ আসে।