ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি : ঠাকুরগাঁওয়ে নদীর পাড় থেকে সাইজুল ইসলাম (৪০) ও আসমা বেগম (৩৫) নামের এক দম্পতির লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার (৯ ফেব্রুয়ারি) বেলা ১১ টার দিকে সদর উপজেলার আক্চা ইউনিয়নের বরুনাগাঁও এলাকার সেনুয়া নদীর পশ্চিম পাড় থেকে সাইজুলের এবং পূর্ব পাড় থেকে আসমার গলাকাটা লাশ উদ্ধার করা হয়। সাইজুল ইসলাম শহরের ১০ নম্বর ওয়ার্ডের আকচা কাজীপাড়া এলাকার মৃত তোবারক আলীর ছেলে এবং আসমা বেগম তার স্ত্রী ছিলেন।

পুলিশ সুত্রে জানা যায়, সুরতহাল রিপোর্ট করার সময় সাইজুলের মুখে বিষের আলামত পাওয়া গেছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, তিনি বিষপান করে আত্মহত্যা করেছেন।

স্থানীয় কাউন্সিলর জাহাঙ্গীর আলম জানান, আসমা সাইজুলের দ্বিতীয় স্ত্রী। প্রথম স্ত্রীর ঘরে দুই মেয়ে আর দ্বিতীয় স্ত্রীর ঘরে এক ছেলে সন্তান রয়েছে। সাইজুলের বসতভিটাটি দ্বিতীয় স্ত্রী তার ছেলের নামে লিখে দেয়ার জন্য সাইজুলকে চাপ প্রয়োগ করছিলেন। অন্যদিকে প্রথম স্ত্রী তার মেয়েদের নামে ওই বসতভিটা লিখে দেয়ার জন্য সাইজুলকে চাপ দিতে থাকে। আসমা বেগমেকে গলা কেটে হত্যার পর বিষ পান করে সে আত্মহত্যা করেছে এবং পারিবারিক কলহের জের ধরেই বিভৎস এ ঘটনাটি ঘটেছে বলে ধারণা করছি।

নিহতদের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে এবং এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানান ঠাকুরগাঁও সদর থানার ওসি তানভীরুল ইসলাম ।