জসীম উদ্দিন ইতি, ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি: পুলিশ কর্মকর্তাদের দ্বারে দ্বারে ঘুরে দীর্ঘ এক বছর ধরে নিখোঁজ পুলিশ কনস্টেবলের সন্ধ্যান না পেয়ে ঠাকুরগাঁওয়ে নিখোঁজ রাজিউর ইসলাম নামে এক পুলিশ কনস্টেবল সন্ধ্যান চেয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছে তাঁর পরিবার।

বুধবার দুপুরে ঠাকুরগাঁও রিপোর্টার্স ইউনিটি কার্যালয়ে এ সাংবাদিক সম্মেলন করেন। সাংবাদিক সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন তাঁর স্ত্রী ফাতেমা আক্তার ও তাঁর মা মনোয়ারা বেগম।

নিখোঁজ পুলিশ কনস্টেবলের বাড়ী ঠাকুরগাঁও জেলার পীরগঞ্জ উপজেলার জলগাঁও গ্রামের মৃত সাইফুর রহমানের ছেলে। তিনি পুলিশ কনস্টেবলের নিয়োগ পেয়ে পঞ্চগড়ের আটোয়ারী থানায় যোগ দেন। সেখান থেকে অজ্ঞাত কারণে তাঁকে ক্লোজ করে পঞ্চগড় পুলিশ লাইনে পাঠায় উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ।

সাংবাদিক সম্মেলনে তাঁর মা মনোয়ারা বেগম লিখিত বক্তব্যে বলেন, গত বছরের ২৮ আগস্ট তাকে বাড়ীতে আসার জন্য ছুটি দিলে পুলিশ লাইন থেকে বের নিখোঁজ হয় ওই পুলিশ কনস্টেবল। এরপর থেকে সকল স্থানে খোঁজাখুজি সন্ধ্যান পায়নি তাঁর পরিবার। সন্ধ্যান চেয়ে পঞ্চগড় থানায় সাধারণ ডাইরী করার এক বছর সময় পার হয়েছে। পঞ্চগড়ের পুলিশ সুপার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার, নীলফামারী জেলার গোয়েন্দা বিভাগের হাশিবুল ইসলামসহ উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের নিকট একাধিকার আমার ছেলের সন্ধ্যানে গেলেও তাঁরা কোন সহযোগিতা করেনি। উল্টো আজ কাল আসবে বলে কালক্ষেপন করছেন।

তাঁর মা আরও বলেন, নীলফামারী জেলার গোয়েন্দা বিভাগের হাশিবুল ইসলামের সাথে সু-সম্পর্ক থাকায় ছেলেকে ফিরিয়ে দেওয়ার জন্য নিশ্চয়তা প্রদান করলেও এক বছরও খোঁজ মেলেনি রাজিউরের।

পুলিশ কনস্টেবলের স্ত্রী ফাতেমা আক্তার বলেন, দীর্ঘ এক বছর ৩ বছরের ছেলে সন্তানকে নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছি। কর্তৃপক্ষ তার বেতন ভাতা বন্ধ করে দিয়েছে। স্বামীকে না ফিরে পেলে অনাহারে রাস্তায় দাড়াতে হবে। স্বামীকে ফিরে পেতে পুলিশের উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।