রোমান বেপারী, মাদারীপুর প্রতিনিধিঃ মাদারীপুরের ডাসার উপজেলায় আলামিন হাওলাদার নামে স্ত্রী নির্যাতন মামলার ওয়ারেন্টভুক্ত এক আসামীকে দ্রুত গ্রেফতারের দাবিতে সাংবাদিক সম্মেলন করেছে অসহায় ভুক্তভোগী পরিবার।

বৃহস্পতিবার দুপুরে কালকিনি উপজেলা রিপোর্টার্স ইউনিটি কার্যালয় এ সাংবাদিক সম্মেলনে বক্তব্যকালে স্বামী আলামীনকে গ্রেফতার করে সঠিক বিচারের দাবিতে দুই অবুঝ সন্তানের উপস্থিতে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন নির্যাতিতা নাসিমা বেগম।

ভুক্তভোগীর লিখিত অভিযোগ সুত্রে জানাগেছে, উপজেলার দক্ষিন ভাউতলী গ্রামের অসহায় আবুল হাসেমের মেয়ে নাসিমা বেগমকে প্রায় ১০ বছর আগে পরিবারিকভাবে বিয়ে করেন দক্ষিন মাইজপাড়া গ্রামের রকিব হাওলাদারের ছেলে আলামীন। বিয়ের পর তাদের সংসারে ১ ছেলে ও ১ মেয়ে জন্মলাভ করে। এ সন্তান জন্মের পরই আলামীন বিভিন্ন সময় যৌতুকের দাবিতে নাসিমাকে শারীরিকভাবে নির্যাতন চালিয়ে আসছে। নাসিমার পরিবার গরীব হওয়ায় এ যৌতুকের টাকা দিতে ব্যর্থ হওয়ায় তার উপর আরো নির্যাতনের মাত্রা বেড়ে যায়। এক পর্যায় নির্যাতন সইতে না পেরে নাসিমা তার দুই সন্তান নিয়ে নিন্মবিত্ত বাবার বাড়িতে আশ্রায় নেয়। এরপর থেকে আলামীন তার স্ত্রী ও সন্তানদের সাথে সকল যোগাযোগ রক্ষা বন্ধ করে দেন। এতে করে নাসিমা অর্থভাবে তার দুই সন্তান নিয়ে অর্ধহারে দিন কাটা”েছন। পরে নিরুপায় হয়ে নাসিমা বেগম বাদী হয়ে মাদারীপুর কোর্টে যৌতুক ও নারী-শিশু নির্যাতন মামলা দায়ের করেন। কোর্ট আলামিনকে গ্রেফতারের জন্য ওয়ারেন্ট প্রদান করে ডাসার থানা পুলিশের কাছে পাঠান। কিš‘ ওয়ারেন্ট বের হওয়ার বেশ কয়েকদিন অতিবাহিত হলেও রহস্যজনক কারনে আলামীনকে গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। এনিয়ে সাংবাদিক সম্মেলনে চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন বাদী নাসিমা বেগম।

ভুক্তভোগী নাছিমা বেগম বলেন, সমাজে দুর্বল লোকের কোন দাম নেই। শক্তিশালী না হলে সঠিক বিচার পাওয়া যায়না। আমার স্বামী আলামীনের বিরুদ্ধে ওয়ারেন্ট বের হলো অথচ থানা পুলিশ তাকে ধরছেনা। আমরা তার দ্রুত গ্রেফতারের দাবি জানাই।

এ বিষয় জানতে চাইলে অভিযুক্ত আলামীনকে এলাকায় পাওয়া যায়নি।