নিজস্ব প্রতিবেদক : তথ্য লুকিয়ে রাখার প্রবণতা কর্মকর্তাদের মাঝে এখনো রয়েছে। তথ্য সকল জনগনের জন্য। কিন্তু তথ্য চেয়ে বিভিন্ন শ্রেনী পেশার মানুষ আবেদন করলেও সাংবাদিকরা কম আবেদন করেন। ১৭৬৬ সালে প্রথম সুইডেনে তথ্য অধিকার আইন প্রণয়ন হওয়ার প্রায় ৩০০ বছর পর ২০০৯ সালে বাংলাদেশে আইনটি প্রণীত হয়। আইনটি প্রণীত হবার পর তথ্য চেপে রাখার মানসিকতা কিছুটা ভাঙতে শুরু করেছে। আইনটি সম্পর্কে সকলকেই সচেতন থাকা প্রয়োজন বলে মন্তব্য করেছেন পিআইবির মহাপরিচালক জাফর ওয়াজেদ।

শুক্রবার (৩০ জুলাই) রাত ৯ টায় বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম আয়োজিত পেশায় অপেক্ষাকৃত নবীন সাংবাদিক প্রশিক্ষণ কর্মশালায় প্রেস ইনস্টিটিউট বাংলাদেশ (পিআইবি) মহাপরিচালক জাফর ওয়াজেদ প্রধান অতিথি হিসেবে ভার্চুয়ালি অংশ নিয়ে প্রশিক্ষণ কোর্সটির উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন।

দেশের সাংবাদিকদের আরো দক্ষ করে গড়ে তুলতে এই প্রথমবারের মত বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরামের উদ্যোগে তিনদিন ব্যাপী বুনিয়াদী ও তথ্য অধিকার আইন ২০০৯ বিষয়ক প্রশিক্ষণ কর্মশালার আয়োজন করা হয়। সারাদেশের বিভিন্ন মিডিয়ার ৯০ জন সাংবাদিক প্রথম পর্যায়ে অংশ নেন।

বিএমএসএফের সিনিয়র সহ-সভাপতি সাঈদুর রহমান রিমনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টার্স এসোসিয়েশনের সভাপতি মিজান মালিক, সংগঠনের আইন উপদেষ্টা ও সুপ্রীম কোর্টের সহকারী এ্যাটর্নী জেনারেল এ্যাড. মুহাম্মদ আওলাদ হোসেন।