প্রতিবেদক: তানোর (রাজশাহী):
রাজশাহীর তানোরের তালন্দ ইউনিয়ন (ইউপি) আওয়ামী লীগ সভাপতি নাজিমুদ্দীন বাবুকে অবাঞ্চিত ঘোষণা করে দল থেকে বহিস্কার ও তার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি
করেছে স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা বলে অভিযোগ উঠেছে।

স্থানীয়রা জানান, চলতি বছরের ১৫ আগস্ট বৃহস্প্রতিবার তালন্দ ইউপি আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা জরুরী বৈঠক করে নাজিমুদ্দীন বাবুকে অবাঞ্চিত ঘোষণা করে তাকে দল থেকে বহিস্কার ও তার দৃষ্টান্তমূলক
শাস্তির দাবি করেছে।

চলতি বছরের ১১ আগস্ট রোববার নাজিমুদ্দীন বাবু তার অনুগত জামায়াত-বিএনপি
মতাদর্শী লোকজন নিয়ে দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে লালপুর বাজারে প্রকাশ্যে দিবালোকে ফিল্মি স্টাইলে তালন্দ ইউপির ৫ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগ সভাপতি ও ইউপি
সদস্য আবুল হাসানের দোকানে হামলা করে ভাংচুর লুটপাট ও আবুল হাসানকে মারপিট করে গুরুত্বরভাবে জখম করায় নেতাকর্মীরা বাবুর বিরুদ্ধে এমন সিদ্ধান্ত
নিয়েছে বলে একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছে।

স্থানীয়দের অভিযোগ, নাজিমুদ্দীন বাবুর চরম দৌরাত্বে সাধারণ মানুষ অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে। তারা বলেন, বাবুর একাধিক নারী কেলেঙ্কারীর ঘটনায় দলের
ভাবমূর্তিও ক্ষুন্ন হচ্ছে।

স্থানীয়রা জানান, বিএনপি থেকে এসে রাতারাতি ইউপি আওয়ামী লীগের সভাপতির পদ হাতিয়ে নিয়েছে। আর পদ হাতিয়ে নেয়ার পর পরই বাবু চরম বেপরোয়া হয়ে উঠেছে।

বিএনপি মতাদর্শী বাবু ইউপি আওয়ামী লীগের সভাপতি হলেও এখানো আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের কোনো নেতাকর্মীর সঙ্গে তার তেমন কোনো সম্পর্ক গড়ে উঠেনি। এখানো তার চলাফেরা বিএনপি-জামায়াত মতাদর্শীদের সঙ্গে।
এখানো তিনি দিনে আওয়ামী লীগ ও রাতে বিএনপির
রাজনীতি করে চলেছেন।

প্রসঙ্গত, চলতি বছরের ১১ আগস্ট রোববার সকালে ফরহাদ নামের একটি ফেসবুক আইডি থেকে ইউপি আওয়ামী লীগ সভাপতি নাজিমুদ্দীন বাবু, তার স্ত্রী ও কন্যার
বিরুদ্ধে আপত্তিকর স্ট্যাটাস দেয়।

এতে বলা হয় নাজিমুদ্দীন বাবু একজন লুচ্চা নারী কেলেঙ্কারীর অভিযোগে একবার তাকে জুতার মালা পরিয়ে গ্রামে ঘোরানো হয়েছে, এছাড়াও তার স্যালককে বিদেশ
পাঠিয়ে তার স্ত্রীর সঙ্গে অনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনসহ নানা ধরনের আপত্তিকর কথা বলা হয়েছে।

এদিকে বাবুর সন্দেহ ফরহাদ নামের ফেসবুক আইডি হ্যাক করে তার
বিরুদ্ধে আবুল হাসান এসব অপপ্রচার করেছে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, শুধুমাত্র সন্দেহের বশবর্তী হয়ে রোববার বাবু তার অনুগত জামায়াত-বিএনপি
মতাদর্শী লোকজন নিয়ে দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে ফিল্মি স্টাইলে লালপুর বাজারে আবুল হাসানের কীটনাশকের দোকানে হামলা করে ভাংচুর ও আবুল
হাসানকে বেধড় মারপিট করে।

এব্যাপারে জানতে চাইলে তালন্দ ইউপি আওয়ামী লীগের সভাপতি নাজিমুদ্দীন বাবু এসব অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আবুল হাসানের লোকজন তার বাড়িতে হামলা করতে আসলে তার লোকজন তাদের প্রতিহত করেছে মাত্র।