আইজিপি কাপ ক্রিকেটে আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন চ্যাম্পিয়ন ‘বাংলাদেশ পুলিশ ক্রিকেট চ্যাম্পিয়নশিপ- ২০২০ (আইজিপি কাপ)’- এ চ্যাম্পিয়ন হয়েছে আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন।

রাজধানীর উত্তরার আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন সদর দপ্তরে শনিবার (২৩ জানুয়ারি) চূড়ান্ত খেলায় ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশকে (ডিএমপি) ২০ রানে পরাজিত করে দলটি।

এই টুর্নামেন্টে সর্বোচ্চ রান সংগ্রহকারী হলেন মাইনুল ইসলাম। ম্যান অব দ্য টুর্নামেন্ট হয়েছেন আ. সালাম সোহাগ। প্রধান অতিথি হিসেবে বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন পুলিশের ইন্সপেক্টর জেনারেল (আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদ।

তিনি বলেন, ‘একজন ভালো পুলিশ সদস্য হওয়ার আগে একজন ভালো মানুষ হতে হবে। ভালো মানুষ হতে ভালো যতোগুলো গুণাবলী আছে, সেগুলোকে অর্জন করতে হবে।

তবেই আমরা ভালো পুলিশ সদস্য হতে পারবো। এই ভালো গুণাবলীগুলো চর্চার পাশাপাশি সেগুলো আমাদের আচরণ ও কর্তব্যে প্রতিফলন ঘটাতে হবে।

পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ পুলিশ ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি ডিআইজি মো. মাহবুবুর রহমান। বক্তব্য দেন ডিএমপির কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম, আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের অতিরিক্ত মহাপরিদর্শক মো. মোশারফ হোসেন, উত্তরা বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার মো. শহীদুল্লাহ প্রমুখ।

আইজিপি বলেন, ‘খেলাধুলা পুলিশের প্রশিক্ষণ ও সার্ভিস কালচারের অংশ। আমাদের বিভিন্ন ইউনিটে প্রতিদিন খেলা হয়। এটি পুলিশের শরীর গঠন ও শৃঙ্খলাবদ্ধতারও বিষয়।

পুলিশের ইউনিট প্রধানদের অনুরোধ জানিয়ে ড. বেনজীর আহমেদ বলেন, শুধু যে চ্যাম্পিয়ন হতে খেলতে হবে, তা নয়। বিকেলের খেলাধুলা নিয়মিত চালু রাখতে হবে।

বাহিনীর নিয়ম-শৃঙ্খলা ও শরীর গঠন চর্চাও অব্যাহত রাখতে হবে। বিজয়ী একটি দলের সঙ্গে অতিথিরা তিনি বলেন, ‘দুই লাখ ১২ হাজার সদস্যের এতো বড় বাহিনী, আগামী তিন থেকে পাঁচ বছরের মধ্যে পুলিশ জাতীয় দলে খেলবে বলে আমরা আশাবাদী।

পুলিশের দুই একজন সদস্য ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হিসেবে জাতীয় দলে যেন খেলতে পারেন, সেজন্য পুলিশ ক্রিকেট কমিশনকে নির্দেশ দেন তিনি। আইজিপি বলেন, বিশ্ব ক্রিকেটে বাংলাদেশ ক্রিকেট টিম এখন পরাশক্তি।

দুই একজন ক্রিকেটার যদি পুলিশ বাহিনী থেকে খেলতে পারেন, তাহলে বাংলাদেশ টিমে তারা ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হিসেবে কাজ করতে পারবেন। পুলিশ ক্রীড়া পরিষদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘প্রতি বছর হাজার হাজার সদস্য পুলিশে যুক্ত হন।

তাদেরকে নিয়ে একটি ভালো মানের টিম গঠন করুন।’ কনস্টেবল, উপ-পরিদর্শক (এসআই), সার্জন্ট ও সহকারী পুলিশ সুপারদের (এএসপি) নিয়ে টুর্নামেন্ট আয়োজনেরও নির্দেশনা দেন আইজিপি।