নতুন চুক্তিতে স্বাক্ষর করেছে তুরস্ক ও ইউক্রেন। যুদ্ধবিধ্বস্ত ইউক্রেনের রাস্তা ও ব্রিজ নির্মাণসহ বিভিন্ন অবকাঠামো পুনর্নিমাণে এই চুক্তি স্বাক্ষরিত হয় বলে বার্তা সংস্থা এএফপি বৃহস্পতিবার এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে।

ইউক্রেনের অবকাঠামোমন্ত্রী ওলেক্সান্ডার কুবরাকভ ও তুরস্কের বাণিজ্য মন্ত্রী মেহমেত মুস এই চুক্তিতে স্বাক্ষর করেছেন।

রুশ আক্রমণের শুরুতে ধ্বংস হওয়া বুচা এবং ইরপিনের সংযোগকারী ব্রিজটিকে সংস্কারই চুক্তির অংশ হিসেবে নির্ধারিত অবকাঠামোর প্রথম বড় ধাপ হিসেবে মনে করা হচ্ছে।

এদিকে, তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিস্যেপ তাইয়্যেপ এরদোগান ও জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস বৃহস্পতিবার ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদমির জেলেনস্কির সঙ্গে আলোচনা করবেন।

পোল্যান্ড ঘেষা ইউক্রেনীয় শহর লভিভে হবে এ আলোচনা।

লভিভে উপস্থিত গণমাধ্যম আল জাজিরার সাংবাদিক তেরেসা বো জানিয়েছেন, তিনজনের মধ্যে আলোচনার মাধ্যমে শান্তি আলোচনার দুয়ার খুলতে পারে।
সাংবাদিক তেরেসা বো জানিয়ছেন, তারা তিনজন তিনটি বিষয় নিয়ে আলোচনা করবেন।

প্রথমটি বিষয় হলো- বিশ্বের অন্যন্য প্রান্তেও ইউক্রেনের শস্য পৌঁছানোর পথ খুঁজে বের করা। পরের (দ্বিতীয় বিষয়) হলো ইউক্রেনের জাপোরিঝিয়া নিউক্লিয়ার প্ল্যান্ট নিয়ে আলোচনা। প্ল্যান্টটিতে বর্তমানে কি হচ্ছে সেটি নিয়ে কথা বলবেন তারা।

আর তৃতীয় ইস্যু হলো- রাশিয়ার সঙ্গে ইউক্রেনের চলমান যুদ্ধ বন্ধে একটি রাজনৈতিক সমাধান খুঁজে বের করা।

তিনি আরও বলেন, রাশিয়া-ইউক্রেনকে আগেও আলোচনার টেবিলে বসাতে চেষ্টা করেছেন এরদোগান, কিন্তু সেগুলো ব্যর্থ হয়েছে। অনেকে আশা করছেন এটি (তিন নেতার বৈঠক) শান্তির একটি পথ তৈরি করতে পারে।