দামুড়হুদা প্রতিনিধিঃ দেশের ১৫টি রাষ্ট্রায়ত্ত চিনিকলের লোকসানের বোঝা কমাতে ৬টি চিনিকল বন্ধের প্রতিবাদে দর্শনা কেরু চিনিকলের শ্রমিক-কর্মচারী ও আখ চাষীরা কর্ম বিরতী ও সমাবেশ পালন করেছে। আজ সকাল ৯টা থেকে বেলা ১১টা পর্যন্ত কেরু এ্যান্ড কোম্পানীর ডিষ্ট্রিলারীর গেটের সামনে এ কর্ম বিরতি ও সমাবেশ করেন। বাংলাদেশ খাদ্যশিল্প করপোরেশন দেশের ৬টি চিনিকল বন্ধের সিদ্ধান্ত গ্রহন করেছেন। এসব চিনিকলগুলোর মধ্যে রয়েছে কুষ্টিয়া, পাবনা, রংপুর, প গড় শ্যামপুর ও সেতাবগঞ্জ। চলতি আঁখ মাড়াই মৌসুম চিনিকল বন্ধের সরকারী সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে বাংলাদেশ চিনিশিল্প করপোরেশন শ্রমিক কর্মচারী ও আঁখচাষী ফেডারেশনের যৌথ উদ্যোগে আন্দোলনে নেমেছে।

আজ সোমবার সকাল ৯টা থেকে কেরু চিনিকলের শ্রমিক ও কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি তৈয়ব আলীর সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, সাধারণ সম্পাদক মাসুদুর রহমান, আঁখ চাষী নেতা আব্দুল বারী, শ্রমিক ও কর্মচারী ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি হাফিজুর রহমান, মনিরুল ইসলাম প্রিন্স, সহ-সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান, সহ-সাধারণ সম্পাদক খবির উদ্দিন, শ্রমিক নেতা ফিরোজ আহম্মেদ সবুজ, মেম্বর বাবর আলী প্রমুখ। বক্তারা ১৫টি চিনিকল উন্নয়ন করে চালু করার দাবী করেন। এছাড়া আগামী ৯ ডিসেম্বর স্ব-স্ব এলাকায় জেলা প্রশাসক, উপজেলা নিবার্হী বরাবর, স্বারকলীপি পেশ। আগামী ১৫ ডিসেম্বর আসন্ন মাড়াই মৌসুম ৯টি চালু ও ৬টি মিল বন্ধের আত্মঘাতি সিন্ধান্ত বাতিল ও প্রত্যাহারের দাবী জানিয়ে বলেন, অন্যথায় সকল মিল বন্ধসহ রেলপথ, সড়কপথ অবরোধসহ নানা কর্মসূচি গ্রহন করা হবে বলে বক্তারা জানান।