ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন বৃহস্পতিবার সকালে আরো মন্ত্রীর পদত্যাগের পর কনজারভেটিভ নেতার পদ থেকে পদত্যাগ করার কথা ঘোষণা করেছেন।

তবে চলতি গ্রীষ্মে টোরি নেতৃত্বের প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হওয়ার জন্য তিনি শরত্কাল পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রী হিসাবে দায়িত্ব পালন করে যাওয়ার পরিকল্পনা করেছেন।

৫০ জনের বেশি মন্ত্রী ও সহযোগী সরকার থেকে সরে যাওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে কিছু টোরি এমপি জনসনকে অবিলম্বে সরে দাঁড়ানোর আহ্বান জানাচ্ছেন।

লেবার দলের নেতা কেয়ার স্টারমার এই খবরকে স্বাগত জানিয়ে বলেছেন, জীবনযাত্রার ব্যয়ের সংকটের সময় ‘রক্ষণশীলরা দেশে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করেছে।

কয়েকদিন ধরে মূলত নীরব থাকা পররাষ্ট্রমন্ত্রী সচিব লিজ স্ট্রাস বিদেশ সফর সংক্ষিপ্ত করে লন্ডন ফিরছেন।

এর আগে বুধবার সন্ধ্যা থেকে জ্যেষ্ঠ কয়েকজন মন্ত্রী একে একে দেখা করে পদত্যাগের আহ্বান জানানোর পরও বরিস জনসন বলেছিলেন, তিনি প্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে সরে দাঁড়াবেন না।

দশ নম্বর ডাউনিং স্ট্রিটে বরিস জনসনের সঙ্গে দেখা করা বিদ্রোহী নেতাদের মধ্যে ছিলেন তার ঘনিষ্ঠ হিসেবে পরিচিত স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী প্রীতি প্যাটেল ও মাইকেল গোভের মতো জ্যেষ্ঠ নেতা এবং মাত্র মঙ্গলবারই জনসনের নিয়োগ দেওয়া অর্থমন্ত্রী নাদিম জাহাবি। সূত্র: বিবিসি