দর্শনা অফিসঃ চুয়াডাঙ্গা জেলার দামুড়হুদা উপজেলার দর্শনা কেরু অ্যান্ড কোম্পানীর চাকরির নামে কোটি কোটি টাকার অর্থ বানিজ্যর অভিযোগে তুলে চাকরি চ্যুত শ্রমিকরা মানব বন্ধন করেছে। শনিবার বেলা ১১ টায় দর্শনা -মুজিব নগর সড়কের রেলবাজার বটতলা নামক স্থানে মানব বন্ধন কর্ম সূচি পালন করে চাকরি চ্যুত চিনিকলের ৪২ জন শ্রমিকরা। এদিকে শনিবার বিকাল ৫ টায় দর্শনা কেরু কোম্পানীর শ্রমিক ও কর্মচারী ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দ দর্শনা প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলন করেছে।
চাকরি চ্যুত শ্রমিক এহসানুল হক রাজিব, রেজাউল করিম, হারুন অর রশিদ লিখিত বক্তব্যে বলেন, আমরা দর্শনা কেরু অ্যান্ড কোম্পানীর চিনিকলে দিন হাজিরায় চাকরি করে ১৫ থেকে ২০ বছর যাবত কাজ করে কোন রকম সংসার চালিয়ে আসছিলাম। কিন্তু কেরু অ্যান্ড কোম্পানীর চিনিকলের শ্রমিক ও কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি মো তৈয়ব আলি ও সাধারণ সম্পাদক মাসুদুর রহমান আমাদের কে বাদ দিয়ে অন্য লোকের কাছ থেকে লক্ষ লক্ষ টাকা নিয়ে নতুন শ্রমিক নিয়েছে কেরু কোম্পানীতে। আমরা টাকা না দিতে পারায় আমাদের কে বাদ দেওয়া হয়েছে। অন্য শ্রমিকদের কাছ থেকে শ্রমিক ও কর্মচারী ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দ চাকরির নামে কোটি কোটি টাকার অর্থ বানিজ্যর করেছে। বিষয়টি তদন্ত করার দাবী করেন তারা । তদন্ত করলে থলের বিড়াল বেরিয়ে আসবে বলে জানিয়েছে শ্রমিকরা। বর্তমানে চাকরি হারিয়ে এখন আমারা পথের ফকির , এ বয়সে ছেলে মেয়ে স্ত্রী ও বৃদ্ধ বাবা মা ভাই বোন নিয়ে কোথায় যাবো ,কি করে সংসার চালাবো। চোখে শুধুই অন্ধকার দেখছি।এ দিকে কেরু চিনিকলের শ্রমিক ও কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি মো তৈয়ব আলি ও সাধারণ সম্পাদক মাসুদুর রহমান শনিবার বিকাল ৫ টায় দর্শনা প্রেসক্লাবে এক সাংবাদিক সম্মেলনে দাবী করেছে চাকরির নামে কোটি কোটি টাকার অর্থ বানিজের অভিযোগে সম্পূন্ন মিথ্যা ভিত্তিহিন। দীর্ঘদিন তারা সেটাপ বহির্ভূত অবস্থায় তারা কাজ করে আসছিল ,এখন বাদ পড়লেও তাদেরকে কাজে বহাল করার চেষ্টা করা হচ্ছে। দর্শনা কেরু অ্যান্ড কোম্পানীর চিনিকলের মহা ব্যবস্থাপক (প্রশাসন ) শেখ সাহাবউদ্দীন জানান, সেটাপ বহির্ভূত ও দৈনিক হাজিরায় শ্রমিক নেয়ার বিষয়ে উর্ধতন কতৃপক্ষের নির্দেশ প্রয়োজন। এ বিষয়ে কেরু চিনিকলের ভারপ্রাপ্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো রাব্বীক হাসান এর সাথে কথা বলা হলে তিনি কোন মন্তব্য করতে রাজি হননি ।