পাকিস্তানের বিপক্ষে চট্টগ্রাম টেস্টের প্রথম দিনের শুরুতেই বিপাকে পড়ে যায় বাংলাদেশ দল। ৪৯ রানে প্রথম সারির ৪ উইকেট হারিয়ে কোণঠাসা হয়ে পড়ে টাইগাররা। সকালের এমন স্কোর দেখে অনেকেই মনে করেছেন হয়তো একশ রানের আগেই অলআউট হয়ে যেতে পারে বাংলাদেশ দল।

দলের এমন কঠিন পরিস্থিতিতে হাল ধরেন জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক মুশফিকু রহিম ও লিটন কুমার দাস। ছয়ে ব্যাটিংয়ে নামা লিটন দাসকে সঙ্গে নিয়ে ২০৪ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি গড়েন মুশফিক। তাদের এই জুটিতেই শুরুর হতাশা কাটিয়ে ভালোভাবে প্রথম দিনের খেলা শেষ করে বাংলাদেশ।

আজ দ্বিতীয় দিনে এটাই দেখার ছিল, ইনিংস কত লম্বা করেন লিটন। কিন্তু লিটন পারলেন না। ২২৫ বলে ১১৩ রানে নিয়ে আজ ব্যাট হাতে নামেন লিটন।

যোগ করতে পারলেন একরান মাত্র। হাসান আলির বলটি ঠিকমতো ব্যাটের পিঠে লাগাতে পারেননি। বল সোজা প্যাডে লাগলে আউটের আপিল করেন ফিল্ডাররা।

ফিল্ড আম্পায়ার আউট না দিলেও রিভিও সফল হন বাবর আজম।

২২৩ বলে ১১৪ রানে শেষ হয় লিটন দাসের ইনিংস। বাংলাদেশের রেকর্ড গড়া ৫ম উইকেটের জুটি ভাঙে ২০৬ রানে।

এদিকে সেঞ্চুরির অপেক্ষায় দেখেশুনে ব্যাট করে যাচ্ছেন মুশফিক। ২০৬ বলে ৮৫ রানে ব্যাট করছেন তিনি। তাকে সঙ্গ দিতে মাঠে নেমেছেন ইয়াসির আলী রাব্বি।

এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত বাংলাদেশের সংগ্রহ ৯১ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে ২৬১ রান
লিটন দাসের প্রথম সেঞ্চুরি ও মুশফিকুর রহিমের লড়াকু ফিফটিতে ঘুরে দাঁড়িয়েছে বাংলাদেশ। তবে কাজ এখনও শেষ হয়নি। সাত সকালে দ্রুত উইকেট নিতে পারলে স্বাগতিকদের সাড়ে তিনশ রানে থামানো সম্ভব বলে মনে করছে পাকিস্তান। তবে বাংলাদেশের নজর আরও উঁচুতে। প্রথম ইনিংসে বড় রানের লক্ষ্যে দ্বিতীয় দিন ব্যাটিং করছে মুমিনুল হকের দল।