নীলফামারীর কচুকাটা থেকে মিনারুল ইসলাম(২৮) নামে এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার করেছে সদর থানা পুলিশ। বুধবার রাত নয়টার দিকে কচুকাটা ইউনিয়ন পরিষদ এলাকা থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। মিনারুল জলঢাকা উপজেলার খুটামারা ইউনিয়নের টেঙ্গনমারী সবুজপাড়া এলাকার আলমগীর হোসেনের ছেলে।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে কচুকাটা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুর রউফ জানান, দুদিন আগে নিহতের স্ত্রী শরিফা বেগম সংসার ত্যাগ করে অন্যত্র বিয়ে করেন। ক্ষোভে বুধবার বিকেলে কচুকাটা বানিয়াপাড়া কমিউনিটি ক্লিনিক প্রাঙ্গন এসে কিটনাশক পান করেন। বিষয়টি স্থানীয়রা দেখতে পেয়ে তাকে উদ্ধার করে নীলফামারী হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার উদ্দেশ্যে ইউনিয়ন পরিষদ মাঠে নিয়ে আসেন। তাকে মাইক্রোবাসে উঠার আগেই সে মারা যায়।

ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার(নীলফামারী সার্কেল) মুক্তারুজ্জামান, নীলফামারী সদর থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুর রউপ, সদর থানার পরিদর্শক(তদন্ত) মাহমুদ উন নবী।

নীলফামারী থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুর রউপ জানান, রাত নয়টার দিকে ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসা হয়। তার মুখ দিয়ে ফেনা বের হতে দেখা গেছে। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। লাশ ময়না তদন্ত শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।