বদিউজ্জামান তুহিন, নোয়াখালী: নোয়াখালীতে বসতবাড়িতে টুবি বাহিনীর সন্ত্রাসী হামলা, ভাংচুর, লুট, শ্লীলতাহানিসহ ১০ জন আহত। এই ঘটনাটি ঘটেছে নোয়াখালী জেলার চৌমুহনী পৌরসভার ১ নং ওয়ার্ডের মধ্য নাজিরপুর গ্রামে। সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারের দাবীতে চৌমুহনীতে এলাকাবাসী মানববন্ধন ও সমাবেশ করেছেন।

মানববন্ধন

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, টুবি বাহিনীর নেতৃত্বে ইব্রাহীম, কামাল, সেকু, ফারুক, সুমন, পিপিবি ফারুক ও বেচাসহ ৭/৮ জনের অজ্ঞাতনামা সন্ত্রাসীরা এবায়েদ মিয়ার বাড়িতে ‘মার মার’ ডাক দিয়ে বগীর হামলা চালায়। আর এসময় তারা দা, ছেনি, লোহার রড, রাকসা, চাপাতিসহ দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে বসত বাড়িতে অতর্কিত হামলায় সাহাদাত হোসেন (২৫), সৈকত (১০), শাওন (১৯), এমাম হোসেন (৫০), বিবি মরিয়ম (৪৫), মনি আক্তার (৩৫), রাজিয়া বেগম (৪৫), জাহানারা বেগম (৫০), মমতাজ বেগম (৩৩) ও শাহজাদী আক্তারসহ ১০ জন নারী-পুরম্নষ, শিশু আহত হয়।

জখমীদের বেগমগঞ্জ উপজেলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনা চলাকালে এমাম হোসেনের কন্যা শাহজাদী আক্তারকে নগ্ন করে শ্লীলতাহানিসহ দরজা, জানালা, মূল্যবান আসবাব পত্র কুপিয়ে ভাংচুর সহ ৩০ হাজার টাকা মূল্যের স্বর্ণের চেইন ছিনিয়ে নিয়ে যাওয়ার প্রাক্কালে এলোপাথাড়ি মারধর করেন। আর এ ব্যাপারে শাহজাদী আক্তার বাদী হয়ে বেগমগঞ্জ মডেল থানায় অপরাধ মামলা দায়ের করে।

তদন্তকারী এসআই বলেন, ঘটনার অভিযোগে আসামীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। এ রিপোর্ট লেখার সময় পর্যন্ত আসামীরা ধরে পড়েনি