বেল্লাল হোসেন নাঈম, স্টাফ রিপোর্টার (নোয়াখালী): নোয়াখালীর সোনাইমুড়ীর বাগপাচরা গ্রামে এক তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্রীকে (১০) হাত ও  পা বেঁধে ধর্ষণের চেষ্টায় তাজবীর (১৮) নামে এক বখাটে কিশোরকে আটক করেছে পুলিশ। 

শনিবার দুপুরে পুলিশ খবর পেয়ে ধর্ষণের চেষ্টাকারী ওই এলাকার মৌলভী বাড়ীর মেছের আলীর ছেলে তাজবীবকে  আটক করে। তাজবীরের বিরুদ্ধে আরো কয়েকটি মামলা রয়েছে বলে স্থানীয় ভাবে জানা গেছে। 

ভুক্তভোগী স্থানীয় নুরানী মাদ্রাসার তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্রী। তার বাবা জাকির হোসেন পেশায় রাজমেস্ত্রী এবং তাদের বাড়ী রাজশাহী জেলায়। শনিবার ২৭ ফেব্রুয়ারী সকাল ১০ টার সময় ঘটনা ঘটে উপজেলার বাগপাচরা গ্রামে।

এলাকাবাসী জানায়, ভুক্তভোগী ছাত্রী বাবা ও মা সহ ওই এলাকায় দীর্ঘদিন থেকে বসবাস করে আসছে। ছাত্রীর বাবা এলাকায় বিভিন্নস্থানে রাজমেস্ত্রীর কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করে। সকাল ১০ টায় বখাটে কিশোর তাজবীব ভুক্তভোগীকে একা পেয়ে পাশ্ববর্তী বাগানে নিয়ে হাত ও পা বেঁধে  ধর্ষণের চেষ্টা করে। তার চিৎকারে এলাকাবাসী এগিয়ে আসলে বখাটে কিাশোরটি পালিয়ে যায়।

 এলাকাবাসী জানায়, অভিযুক্ত কিশোরটি ওই এলাকার একটি কিশোর গ্রুপের সেকেন্ড-ইন কমান্ড। তার বিরুদ্ধে অসামাজিক কাজে লিপ্তসহ  নানা অপকর্মের অভিযোগ রয়েছে।  


সোনাইমুড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) গিয়াস উদ্দিন জানান, ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগে তাজবীবকে আটক করা হয়েছে।