তুহিন শরীফ, পটুয়াখালী প্রতিনিধি: মন্দিরে ঠাকুর পূজাঁ দিতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে একইসঙ্গে স্বামী-স্ত্রীর মৃত্যু হয়েছে। রোববার সকাল ১০টায় উপজেলার রনগোপালদী ইউনিয়নের গুলি আউলিয়াপুর গ্রামে এই মর্মান্তিক দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন- ওই গ্রামে মৃত সুকুরঞ্জন কবিরাজের ছেলে শুলিন কবিরাজ (৭০) ও তার স্ত্রী পুষ্প রানী (৬৫)।থানা পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, প্রতিদিনের ন্যায় মন্দিরের খেচি গেট খুলতে গিয়ে বিদ্যুৎ তারের সাথে পুষ্প রানী জড়িয়ে পড়ে ও তার স্বামী শুনিল কবিরাজের ডাকে সারা না দেয়ায় স্বামী-ন্ত্রীকে স্পর্শ করলে সেও বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয় উভয়ই। পরে স্থানীয়রা স্বামী-স্ত্রীকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক দম্পতিকে মৃত্যু ঘোষনা করেন। নিহত দম্পতির দুই ছেলে রয়েছে। একসঙ্গে দম্পতির ওই বাড়িতে ছেলেসহ তাদের স্বজনদের মধ্যে শোকের মাতম চলছে।
রনগোপালদী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান নাসির সিকার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। দশমিনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মেহেদী হাসান জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। আর মন্দিরের বিদ্যুৎ ওয়ারিং লাইনের তার লিক থেকে মন্দিরের লোহার গেট বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে একইসঙ্গে দম্পতির মৃত্যুতে কোন সন্ধেহ না থাকায় ময়নাতদন্তের প্রয়োজন হয়নি।