মোঃ মনিরুল ইসলাম, পাইকগাছা(খুলনা) প্রতিনিধি: “পাইকগাছায় ১৫ বছর ধরে পলিথিনে মোড়ানো ভাঙ্গা ঘরে সালমার পরিবারের বসবাস” শিরোনামে বিভিন্ন পত্র পত্রিকায় খবর প্রকাশিত হওয়ার পর অসহায় সালমাকে ঘর বাঁধা টাকা ও টিন দিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার এ বি এম খালিদ হোসেন সিদ্দীকী। বৃহস্পতিবার নির্বাহী কর্মকর্তা সালমার পরিবার কে ডেকে ঘর বাঁধার জন্য ১৮ হাজার টাকার চেক ও ৬ বান টিন দেন।

উল্লেখ্য, উপজেলার  গড়ইখালী গ্রামে অসুস্থ স্বামী মহব্বত (৪০) ও দু’সন্তানকে নিয়ে ১০ বছর ১ শতক জমির উপর পলিথিন মোড়ানো ঘরে বসবাস করে সালমা। অসুস্থ স্বামী ভ্যান চালিয়ে যা পায় তাই দিয়েই চলে তার পরিবার। যেদিন ভ্যান চালাতে না পারে সে দিন খাওয়া হয় না তাদের। একদিকে খাবারের চিন্তা অন্যদিকে ছেলে- মেয়েদের লেখাপড়ার খরচ যোগাতে পারছেনা তারা। অসুস্থ স্বামী সন্তান নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছেন সালমা। সোয়া এক শতক জমির উপর কোনমতে ভাঙ্গা চুরা টিনের নিচে পলিথিন মুড়িয়ে বসবাস করছে সালমার পরিবার। এমন সংবাদ প্রকাশের পর বৃহষ্পতিবার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এ বি এম খালিদ হোসেন সিদ্দিকী ডেকে সালমার পরিবারকে টাকা ও টিন দিলেন। সালমা মাথা গোজার ঠাঁই পেয়ে আবেগে কেঁদে দিলেন। মাথা গোঁজার ঠাঁই করে দেয়ায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে সাধুবাদ জানিয়েছেন এলাকার সর্বসাধারণ।