পাথরঘাটা (বরগুনা) প্রতিনিধিঃ বরগুনার পাথরঘাটায় সুইজ ঘাটে খেলতে গিয়ে ওই সুইজ ঘাটের খালে পড়ে প্রাণ গেল শিশু আরিফার। নিখোঁজের ৮ ঘণ্টা পর শিশু আরিফার লাশ উদ্ধার করেছে স্থানীয়রা। তবে পাথরঘাটা ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ৬ ঘন্টা চেষ্টা করেও ওই শিশুর লাশ উদ্ধার করতে পারেনি।

শিশু আরিফা বরগুনার পাথরঘাটা উপজেলার দক্ষিণ কাঠালতলী গ্রামের আরিফ হোসেন আড়াই বছরের কন্যা।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার সকাল ৯টার দিকে দক্ষিণ কাঠালতলী গ্রামের স্লুইজঘাট খেলতে ছিল শিশু আরিফা। এ সময় তার সঙ্গে তিন বছরের আর একটি মেয়ে আরিফা’র সঙ্গে খেলছিল। ওই মেয়েটির কথার সূত্র ধরে দক্ষিণ কাঠালতলী স্লুইজঘাট খালে নিখোঁজ আরিফের সন্ধানে নামে পরিবারসহ স্থানীয় লোকজন। পরে খবর পেয়ে দুই ঘন্টা পর পাথরঘাটা ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা নিখোঁজ শিশু উদ্ধার যোগ দেয়। পরবর্তীতে নিখোঁজের প্রায় ৮ ঘন্টা পর বিকেল পাঁচটার দিকে ওই খালের ৪ কিলোমিটার দূর থেকে শিশুর আরিফার লাশ উদ্ধার করে স্থানীয়রা। সন্ধ্যায় এ সংবাদ লেখার সময় পরিবারসহ স্থানীয়দের মধ্যে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

পাথরঘাটা ফায়ার সার্ভিসের কর্মী রুম্মান হোসেন বলেন, ঘটনার পর থেকে আমরা চেষ্টা করেছিলাম কিন্তু স্থানীয়দের জালে আটকা পড়ে শিশুটি উদ্ধার হয়েছে।

এ ব্যাপারে কাঠালতলী ইউনিয়ন পরিষদের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, পাথরঘাটা ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা ঘটনাস্থলে এসে তাদের ডুবুরি না থাকায় উদ্ধারকাজ নামতে পারেনি। পরবর্তীতে বরিশাল থেকে ফায়ার সার্ভিস এসে কাজে যোগ দিলেও তাদের চেষ্টা তেমনটা আগায়নি। পরবর্তীতে নিখোঁজের ৮ ঘন্টা পর স্থানীয়রা বিকেল পাঁচটার দিকে শিশু আরিফার লাশ উদ্ধার করেন।