রাজধানীর পান্থপথের একটি আবাসিক হোটেল থেকে জান্নাতুল নাঈম সিদ্দীক (২৭) নামে এক নারী চিকিৎসকের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। জান্নাতুলের গলায় ধারালো অস্ত্র দিয়ে কাটার চিহ্ন পাওয়া গেছে।

বুধবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে পান্থপথের ফ্যামিলি সার্ভিস অ্যাপার্টমেন্ট নামের ওই আবাসিক হোটেল থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। কলাবাগান থানা পুলিশ এ তথ্য যুগান্তরকে নিশ্চিত করেছে।

জানা গেছে, জান্নাতুল নাঈম সিদ্দীক মগবাজারের কমিউনিটি মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে এমবিবিএস পাস করেছেন। বর্তমানে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্ত্রী ও গাইনি বিষয়ে কোর্স করছিলেন তিনি।

পুলিশ জানায়, মৃত্যুর আগে ওই নারীর সঙ্গে হোটেলে অবস্থান করছিলেন তার বন্ধু রেজাউল। তিনি বর্তমানে পলাতক আছেন।

কলাবাগান থানার ওসি মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম টেলিফোনে যুগান্তরকে বলেন, স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে তারা দুজন হোটেলে রুম বুকিং করেন। বুধবার রাতে হোটেল কর্তৃপক্ষ পুলিশকে খবর দিলে হোটেলটির ৩০৫ নম্বর কক্ষের বিছানার ওপর থেকে গলাকাটা অবস্থায় জান্নাতুল নাঈমের লাশ উদ্ধার করা হয়। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য ঢামেক হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

ওসি আরও জানান, পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি) ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে আলামত সংগ্রহ করেছে। এ ঘটনায় প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য হোটেল ম্যানেজারকে আটক করা হয়েছে। রেজাউলের নামে মামলা করেছেন জান্নাতুলের বাবা শফিকুল আলম।

রেজাউলকে ধরতে পুলিশ অভিযান শুরু করেছে বলে ওসি জানান।